গাজীপুরের পুবাইলে প্রবাসীকে হত্যা চেষ্টায় থানায় মামলা, বাদীকে প্রাণনাশের হুমকি

প্রকাশিত

গাজীপুর প্রতিনিধিঃ গাজীপুর মহানগরীর পুবাইল থানাধীন মেঘডুবি এলাকায় প্রবাসী ইব্রাহীম (৩৫) কে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে বাড়ি থেকে ডেকে এনে হত্যা চেষ্টায় অজ্ঞাতনামা ৫/৬ জনসহ আরো ৬ জনকে আসামী করে পুবাইল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলায় ইব্রাহীমের দুলাভাইয়ের করা অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, গাজীপুর জেলার কালীগঞ্জ থানাধীন পোটান গ্রামের রমিজ উদ্দিন বেপারীর ছেলে ইব্রাহীম ভয়াল মরণঘাতি করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট লকডাউনের কারণে প্রবাসে যেতে পারেনি। ইব্রাহীম গত ১০/১২ বছর পূর্বে পুবাইল থানাধীন মেঘডুবি পূর্ব পাড়া এলাকার ফয়সাল মিয়ার মেয়ের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবব্ধ হউ। গত ১৫ই জুন ২০২০ ইং তারিখে রাসেল (৩০), হোসেন (২৮), ছালাম উদ্দিন (৫০), সোহেল (২৮) সায়েদ )২২), জুয়েল ৩০সহ অজ্ঞাত নামা আরো ৫/৬ জন পুরোনো পত্রুতা পোষন করিয়া ইব্রাহিমকে মিথ্যা কথা বলে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পুবাইলের মেঘডুবি এলাকায় মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ডেকে আনে। তারপর কোন কিছু বুঝে ওঠার আগেই সকলে সম্মিলিত ভাবে ইব্রাহিমকে কাঠের লাঠি ও লোহার রড দ্বারা পিটিয়ে শরিরের বিভিন্ন স্থানে নিলাফুলা জখম করে। এসময় তারা ইব্রাহিমের কাছে থাকা নগদ ৫০,০০০ টাকা ও গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র ছিনিয়ে নেয়। সন্ত্রাসীদের করা লোহার রডের আঘাতে ইব্রাহিমের পকেটে থাকা মোবাইল ফোন নষ্ট হয়ে যায়। এবং রডের আঘাতে একটি চোখ নষ্ট হয়ে যায়।

এ বিষয়ে আহত প্রবাসী ইব্রাহীম জানায়, আমাকে ডেকে নিয়ে এভাবে মারধর করবে আমি বুঝতে পারি নাই। আমার একটি চোখ নষ্ট করে দিয়েছে যার কারণে আমি প্রবাসে যেতে পারছি না। আমাকে মারধর করে এরা খ্যান্ত হয়নি। আমাকে মারধর করায় আমার দুলাভাই মোঃ আব্দুস সালাম বাদী হয়ে পুবাইল থানায় মামলা দায়ের করার পর থেকেই সন্ত্রাসিরা আমাকে ও দুলাভাইকে বিভিন্ন ভাবে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। বর্তমানে আমি ও আমার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুঘছি।

এ বিষয়ে পুবাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ নাজমুল হক ভূঁইয়া বলেন, মামলার পরিপেক্ষিতে তদন্ত চলছে। দ্রুত ঘটনার মুল রহস্য উতঘাটন করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।