গাজীপুরের বোর্ড বাজার এলাকায় কুখ্যাত সন্ত্রাসী ভাঙ্গারি মিলন অস্ত্রসহ র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার

প্রকাশিত

রাজীব হাসান আকাশ,চ্যানেল সিক্স: গাজীপুরের বোর্ড বাজার এলাকার কুখ্যাত সন্ত্রাসী ফরদুল ইসলাম মিলন ওরফে ভাঙ্গারি মিলনকে (৩০) গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১এর সদস্যরা। এসময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, ম্যাগাজিন ও গুলি উদ্ধার করায় হয়। ঘটনাটি ঘটে গত মঙ্গলবার রাতে। এলাকার মূর্তিমান আতঙ্ক ভাঙ্গারি মিলন গ্রেফতার হওয়ায় জনমনে স্বস্তি ফিরে এসেছে।

র‌্যাব-১এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল মো. সারওয়ার-বিন-কাশেম জানান, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে বোর্ড বাজার এলাকায় কতিপয় সন্ত্রাসী চাঁদাবাজির উদ্দেশ্যে প্রাইভেটকার নিয়ে অবস্থান করছে। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল ওই এলাকায় অভিযান চালায়। এসময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে কৌশলে পালানোর চেষ্টাকালে এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী ফরদুল ইসলাম মিলন ওরফে ভাঙ্গারি মিলনকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেহ তল্লাশি করে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন ও ৪ রাউন্ড গুলি এবং তার প্রাইভেটকার তল্লাশি করে ৫ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। পরে তাকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য উত্তরাস্থ র‌্যাব-১এর কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।
তিনি আরও বলেন, গ্রেফতারকৃত মিলন গাজীপুর জেলার একজন চিহ্নিত চাঁদাবাজ ও অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী।

সে মূলত জয়দেবপুর এলাকার একজন বড় মাপের ডিস ব্যবসায়ী। এই ডিস ব্যবসার অন্তরালে সে দীর্ঘদিন যাবৎ সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল। এছাড়াও সে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নাম ভাঙিয়ে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে গাজীপুর ও আশপাশ এলাকায় চাঁদাবাজি করে আসছিল। এলাকার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠিত গার্মেন্টস ও শিল্প প্রতিষ্ঠান হতে সে নিয়মিত মোটা অঙ্কের মাসোয়ারা ও চাঁদা আদায় করত। এছাড়াও বিভিন্ন মার্কেটের দোকান/স্পেস বরাদ্দ পাওয়ার জন্য তাকে মোটা অঙ্কের টাকা দিতে হত। সম্প্রতি সে ডিস লাইনের বন্টন ও নিয়ন্ত্রন কায়েমের অসৎ উদ্দেশ্যে বিভিন্ন সময় প্রকাশ্য অস্ত্রসহ মহড়া দিত। গাজীপুর এলাকার ত্রাস সৃষ্টিকারী এই সন্ত্রাসীর নাম শোনা মাত্রই এলাকায় অবস্থিত বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়। তার বিরুদ্ধে জেলার বিভিন্ন থানায় মারামারি, ছিনতাই, চাঁদাবাজি, গাড়ি পোড়ানোসহ ১০ টি মামলা ও ১৭ টি সাধারণ ডায়েরী লিপিবদ্ধ রয়েছে।