গাজীপুরে অসহায় মানুষের পাশে দাড়ালেন যুবলীগ নেতা রাসেল সরকার

প্রকাশিত

শেখ রাজীব হাসান, গাজীপুরঃ দেশ ব্যাপী মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট লক ডাউনে বেকার হয়ে পরা গরীব ও অসহায় মানুষের পাশে থেকে ধারাবাহিক সহায়তা প্রদান করছেন গাজীপুর মহানগর যুবলীগের আহবায়ক কামরুল আহসান সরকার রাসেল। এই রমজান মাসে প্রতিদিন পাঁচ শতাধীক রোজাদারকে রান্না করা ইফতার দিচ্ছেন যুবলীগের এই পরিশ্রমি নেতা। ধর্ম বর্ণ ও সাম্প্রদায়িকতা ভুলে সকল মসজিদ, মাদ্রাসা, এতিমখানাসহ সকল ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে সহায়তা করছেন প্রতিনিয়ত। এছাড়া অসহায় সাধারণ মানুষ ও মধ্যবিত্তদের মাঝে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের ত্রাণ সামগ্রী, বস্র ও নগদ অর্থ দিচ্ছেন এই নেতা। এরই ধারাবাহিকতায় আজ ৯ই মে শনিবার বাদ আসর টঙ্গী সিলমুন আবদুল হাকিম মাষ্টার উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পাঁচ শতাধীক রোজাদারের মাঝে ইফতার বিতরণ করেন। এছারা আজ বাদ জহুর গাজীপুর চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় হিজড়া সম্প্রাদয়ের প্রায় ৬০০ জনের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ করেন।

৪৭ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি শাখাওয়াত হোসেন সুজনের সঞ্চালনা ও ৪৭ নং ওয়ার্ড যুবলীগের আহবায়ক মনির হোসেন সাগরের সভাপতিত্বে সিলমুন উচ্চ বিদ্যালয়ে কামরুল আহসান সরকার রালেল আয়োজিত ইফতার বিতরন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, গাজীপুর মহানগর কৃষকলীগের সভাপতি ও সাবেক কাউন্সিলর হেলাল উদ্দিন, গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের

আহবায়ক সদস্য মোঃ ইকবাল মাষ্টার  সিল্মুন আব্দুল হাকিম মাষ্টার উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোঃ মনিরুজ্জামান , টঙ্গী পূর্ব থানা যুবলীগের সভাপতি পদপ্রাথ্রী সোহেল রানা, ৪৭নং ওয়ার্ড যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক কিরণ আহমেদ, ৪৭ নং ওয়ার্ড যুবলীগের আহবায়ক সদস্য খোরশেদ আলম, আমীর হামজা, ওসমান আহমেদ, জসিম, নজরুল ইসলাম, ৪৭নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মোঃ জামান খান, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক কামরুল হাসান সুজন্সহ বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী ও স্থানীয় এলাকাবাসী।

রাসেল সরকার বলেন, দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন পুরণে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের,চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ এবং সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মাইনুল হোসেন খান নিখিল ভাইয়ের নির্দেশে প্রতিদিনের মতোই মহামারি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে বিপদগ্রস্ত অসহায় কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের মাঝে নগদ অর্থ ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছি। পুরো রমজান মাস জুড়ে নগরীর এক থেকে ৫৭ টি ওয়ার্ডে মাহে রমজান উপলক্ষ্যে রান্না করা ইফতার সামগ্রী ইফতার বিতরণ কর্মসূচি চলমান রেখেছি। আগামী দিন গুলোতে আপনাদের পাশে থেকে সাধারণ মানুষদের জন্য কাজ করে যেতে চাই। শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করার আগ পর্যন্ত আমার এই কার্যক্রম চলমান থাকবে।