গাজীপুরে ওসি শাহ্‌ আলমের প্রচেষ্ঠায় একাধীক মামলার আসামীর আত্মাসমর্পণ

প্রকাশিত

শেখ রাজীব হাসান, গাজীপুরঃ গাজীপুরের টঙ্গীতে মাহবুবুর রহমান স্বপণ (৩৫) নামে একজন হত্যা মামলার আসামী ও শীর্ষ মাদক কারবারি পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন। টঙ্গী পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ শাহ্ আলম ও স্থানীয় কাউন্সিলরের প্রায় এক সপ্তাহের প্রচেষ্ঠায় বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশের কাছে স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করেন দুইটি হ ত্যা মামলাসহ ২৩টি মামলার ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী স্বপন।
পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার বুলকার চর গ্রামের আব্বাস আলীর ছেলে স্বপনের বিরুদ্ধে শেরে বাংলা নগর থানা ও গাজীপুরের টঙ্গী থানা (সাবেক), টঙ্গী মডেল থানা (সাবেক) ও টঙ্গী পশ্চিম থানায় মাদক কারবার, হত্যাসহ বিভিন্ন অপরাধে অন্তত ২৩ টি মামলা রয়েছে। তার বিরুদ্ধে থাকা ২৩টি মামলায় সম্প্রতি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়।পরোয়ানার আদেশপত্র টঙ্গী পশ্চিম থানায় এলে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালায়। এরই মধ্যে স্বপন স্বেচ্ছায় সুস্থ জীবনে ফিরে আসতে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন ৫৭ নাম্বার ওয়ার্ড কাউন্সিল গিয়াস উদ্দিনের মাধ্যমে আত্মসমর্পণের আবেদন জানান। স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিল গিয়াস উদ্দিনের উপস্থিতে তার কার্যালয়ে বিপুল সংখ্যক লোকের উপস্থিতিতে আসামি স্বপন টঙ্গী পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ আলমের কাছে আত্মসমর্পণ করেন। এ সময় তাকে ফুল দিয়ে বরন করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।
স্বপনের বিরুদ্ধে যে সকল মামলা চলমান রয়েছে সেগুলো হলোঃ ১। টঙ্গী থানা মামলা নং ৪৬ (৮) ১৬, ধারা – ৩০২/৩৪ পেনাল কোড, ২। টঙ্গী থানা মামলা নং – ২০ (৫) ১৮, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (খ), ৩। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৮৯ (৪) ১৭, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (ক) / ২৫, ৪। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৬৩ (৪) ১৭, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (ক) / ২৫, ৫। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৩৪ (৪) ১৮, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (খ) / ২৫, ৬। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৮১ (১২) ১৭, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (খ) / ২৫, ৭। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৭ (২) ১৮, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (খ) / ২৫, ৮। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৮ (৩) ১৬, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (ক) / ২৫, ৯। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৭ (২) ১৮, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (খ) / ২৫, ১০। টঙ্গী থানা মামলা নং – ১৩ (২) ১৮, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (ক) / ২৫, ১১। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৫২ (১১) ১৭, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৭ (ক) / ২৫, ১২। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৫৭ (৫) ১৮, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৭ (খ) / ২৫, ১৩। টঙ্গী পশ্চিম থানা মামলা নং – ৪১ (৮) ১৮, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (খ) / ২৫, ১৪। টঙ্গী মডেল থানা মামলা নং – ২০ (৫) ১৮, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (খ) / ২৫, ১৫। শেরে বাংলা নগর থানা মামলা নং – ৯ (৪) ১৪, ধারা – ১৯৭৪ সনের বিশেষ ক্ষমতা আইন ২৫ বি (১) (বি), ১৬। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৪১ (৪) ১৮, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (খ) / ২৫, ১৭। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৩ (২) ১৭, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (খ) / ২৫, ১৮। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৮১ (১২) ১৭, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (খ) / ২৫, ১৯। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৩৫ (৪) ১৮, ধারা – ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ১৯ (১) এর ৯ (ক) / ২৫, ২০। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৫৬ (৫) ১৮, ধারা –১৪৩/৩৩২/৩৫৩/৩০২৩০৭/৩৪ পেনাল কোড, ২১। টঙ্গী থানা মামলা নং – ৫৬ (৫) ১৮, ধারা – ১৭৩/৩৩২/৩৫৩/৩০২/৩০৭/৩৪ পেনাল কোড।

টঙ্গী পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহ আলম বলেন,তিনি গাজীপুরের টঙ্গী মাজার বস্তি এলাকায় পরিবার পরিজন নিয়ে থাকতেন। সেখানেই তিনি মাদক কারবারসহ বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়েন। টঙ্গী পশ্চিম থানায় তার বিরুদ্ধে ২৩টি মামলা রয়েছে। তিনি স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করলেও তার বিরুদ্ধে পৃথক ২৩ গ্রেপ্তারি পরোয়ানা থাকায় তাকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে গাজীপুর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (টঙ্গী জোন) আশরাফুল ইসলান,বলেন, আসামি স্বপন এখন অনুতপ্ত। আমাদের কাছে কথা দিয়েছে সে সুস্থ জীবনে ফিরে আসতে চায়। আইনি প্রক্রিয়া মেনে এবং স্বেচ্ছায় সুস্থ জীবনে ফিরে আসা ব্যক্তিদের নিয়ে বর্তমান সরকারের নানামুখী উদ্যোগের আলোকে আমরা চেষ্টা করে দেখবো তার জন্য কিছু করা যায় কিনা।