জিসিসি মেয়রের নির্দেশে অসহায় মানুষের পাশে ‘হ্যালো ছাত্রলীগ’

প্রকাশিত
শেখ রাজীব হাসান,বিশেষ প্রতিনিধি : মরণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারণে অসহায় হয়ে পরা সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় যে কোন ধরনের সহযোগীতা পৌঁছে দিতে ‘গাজীপুর সিটি করপোরেশন মেয়র অ্যাডভোকেট মো. জাহাঙ্গীর আলম ”হ্যালো ছাত্রলীগ”’ নামে একটি টিম গঠন করেছেন । ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের নিয়ে গঠিত এই টিমকে ফোন করলেই সহযোগীতা নিয়ে পৌঁছে যাবে ‘হ্যালো ছাত্রলীগ’।  মেয়র জাহাঙ্গীরের এই ব্যাতিক্রমী উদ্যোগ সারা দেশের মানুষের মাঝে ব্যাপক প্রসংশীত হয়েছে।
করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সর্বশক্তি নিয়ে মাঠে নেমেছেন গাজীপুরের মেয়র আলহাজ্ব এড, মো. জাহাঙ্গীর আলম। নিত্যনতুন নানা ধরণের সৃজনশীল উদ্যোগ হাতে নিয়ে দেশব্যাপী আলোচনায় রয়েছেন তিনি। সম্মানীত হয়েছেন দলের কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীদের কাছে। গাজীপুর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা শুরু থেকেই মেয়রকে সব ধরনের সহযোগিতা দিয়ে এসেছেন। এবার মেয়রের নির্দেশ বিশেষ টিম গঠিত হলো। ‘হ্যালো ছাত্রলীগ’ টিমে রয়েছে শতাধিক ছাত্রলীগ নেতাকর্মী। গাজীপুর মহানগর ছাত্রলীগ ছাড়াও জেলা ইউনিটের কর্মীরা যুক্ত হয়েছেন এই উদ্যোগে। টিমের সদস্যরা দরিদ্র ও খেটে খাওয়া মানুষদের ২৪ ঘন্টা সেবা দেবে । পবিত্র ঈদুল ফিতরের আগে গাজীপুরের সব শ্রেণী-পেশার মানুষদের সেবা দেওয়ার জন্য কাজ করবে এই টিম। ঈদের আগে ও পরে যে কেউ এই টিমের হটলাইনে ফোন করলেই ঘরে পৌঁছে যাবে খাদ্যসামগ্রী। ইতিমধ্যে গাজীপুরের কাশিমপুর থানার ছয়টি ওয়ার্ডের দরিদ্র পরিবারের মাঝে বন্টনের জন্য এক হাজার ২০০ প্যাকেট প্রস্তুত করা হয়েছে। হ্যালো ছাত্রলীগ টিম পর্যায়ক্রমে মহানগরীর সব কয়টি ওয়ার্ডে একই ধরনের সেবা প্রদান করবে। এই দুর্যোগে মেয়রের পরিশ্রম দেখে ছাত্রলীগের সব নেতাকর্মীরা অনুপ্রাণিত হয়েছে। এখন হ্যালো ছাত্রলীগ খেটে খাওয়া ও দরিদ্র মানুষদের সেবা দেবে। 
জিসিসি মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জাতীয় ও স্থানীয় নানা ইস্যুতে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছে। তাই এই মহামারি মোকাবিলায় ছাত্রলীগের সহযোগিতা একান্ত কাম্য। এছাড়া তাদের আগ্রহের বিষয়টি আমলে নিয়ে হ্যালো ছাত্রলীগ উদ্যোগটি নেওয়া হয়েছে। আমার বিশ্বাস এই টিমের প্রতিটি সদস্য দেশকে ভালবেসে এদেশের মানুষের কল্যাণে বিশেষ ভূমিকা পালন করবে। স্বতস্ফুর্তভাবে কাজ করে গাজীপুরে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তির হাত আরো জোরালো করবে তারা।’