চুয়াডাঙ্গায় ছাত্রলীগের দুই কর্মীকে কুপিয়ে জখম

প্রকাশিত

সনজিত কর্মকার, চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি-

চুয়াডাঙ্গা- অভ্যান্তরীণ কোন্দলে মিরাজ ও বশির নামে দুই ছাত্রলীগ কর্মীকে উপর্যুপুরী কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৭ টার দিকে শহরতলীর দৌলতদিয়াড় এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

হামলায় আহতদের মধ্যে মিরাজকে আশঙ্কজনক অবস্থায় ঢাকাতে নেওয়া হয়েছে।এ ঘটনার পর শহরে ছাত্রলীগের বিবদমান দুই পক্ষের মধ্যে তীব্র উত্তেজনা দেখা দিয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার সন্ধ্যার পর চুয়াডাঙ্গা শহরতলীর দৌলতদিয়াড় দক্ষিণ পাড়া এলাকায় অবস্থান করছিলো ছাত্রলীগের বেশ কয়েকজন সদস্য। এর কিছুক্ষণ পরই প্রতিপক্ষ গ্রুপের ৮/১০ সদস্য তাদের উপর ধারালো অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে হামলা করে। এতে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মিরাজ ও বশির নামে দুই ছাত্রলীগ কর্মী মারাত্মক জখম হয়। পরে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নেয়।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক ডা: শামীমা ইয়াসমিন জানান, ধারালো অস্ত্রের উপর্যপুরী আঘাতের কারণে আহত মিরাজের বাম পায়ের রগ কেটে গেছে। শরীরেও অসংখ্যা ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে। প্রচুর রক্তক্ষরণে তার অবস্থা আশঙ্কজনক। উন্নত চিকিৎসার কারণে তাকে ঢাকায় রেফার্ড করা হয়েছে। অপর আহত বশিরকে চুয়াডাঙ্গাতেই চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপিএম জানান, নিজেদের মধ্যে অভ্যান্তরীণ কোন্দলের কারণে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলাকারীদের ধরতে অভিযান শুরু হয়েছে।