চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়রের শ্বশুর বাড়ীতে দুর্বৃত্তের হামলা ভাঙচুর

প্রকাশিত

সনজিত কর্মকার, চুয়াডাঙ্গা-
চুয়াডাঙ্গাঃ পূর্ব শক্রতার জের ধরে চুয়াডাঙ্গা নিউ মার্কেটের দোতলা থেকে রাশেদ নামে এক যুবককে ফেলে দিয়ে আহত করার ঘটনায় শহরের দৌলতদিয়াড় দক্ষিণপাড়ায় চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়রের শ্বশুর আব্দুল হালিমের বাড়িতে অতর্কিত হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে একদল দুর্বৃত্ত।

মঙ্গলবার রাত ৯ টার দিকে নিউ মার্কেটের ঘটনার জের ধরে রাত ১০ টার দিকে দৌলতদিয়াড় দক্ষিণপাড়ায় মেয়রের শ্বশুর আব্দুল হালিমের বাড়িতে এ হামলা চালায়। আহত রাশেদ দৌলতদিয়াড় দক্ষিণপাড়ার মৃত আব্দুস সালামের ছেলে। জানা যায়, চুয়াডাঙ্গা নিউ মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় ইমন গার্মেন্টসের সামনে থেকে রাশেদ নামে এক যুবককে টেনে হিচড়ে নিচে ফেলে দেয় একদল যুবক। পরে ঘটনাস্থল থেকে আহত রাশেদকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে তার প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। এ ঘটনার এক ঘন্টা পর চুয়াডাঙ্গা পৌর মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপুর শ্বশুর দৌলতদিয়াড় দক্ষিণপাড়া এলাকায় আব্দুল হালিমের বাড়িতে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে অতর্কিত হামলা চালায় একদল দূর্বৃত্তরা। এদিকে, ঘটনার পর চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি), তদন্তসহ ডিবি পুলিশ টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। এ ঘটনায় পৌর মেয়রের শ্বশুর আব্দুল হালিম বাদি হয়ে ১৯ জনের নাম উল্লেখসহ ৩/৪ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছে। আহত যুবক অভিযোগ করে বলেন, পূর্ব শক্রতার জের ধরে চুয়াডাঙ্গার তাপু এবং জনি এবং অজ্ঞাত ৪ জন তার উপরে হামলা করে। এ সময় তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে চুয়াডাঙ্গা নিউ মার্কেটের দ্বিতীয় তলার ইমন গার্মেন্টসের সামনে থেকে মারধর করে নিচে ফেলে দেয়। রাশেদ আরো জানান, গত এক সপ্তাহ আগে দৌলতদিয়াড় টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষের সাথে জনি ও তাপু অসদাচরণ করায় রাশেদ তাদেরকে অপমান করে কলেজ থেকে বের করে দেয়। তাদের মধ্যে এই বিষয়টি নিয়ে রেশারেশি চলছিল।

পৌর মেয়রের শ্বশুর আব্দুল হালিম অভিযোগ করে বলেন, মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে দৌলতদিয়াড়সহ আশপাশ এলাকার একদল যুবক আমার বাড়ির গেটের সামনে এসে আমার নাম ধরে ডাকে। পরে আমার স্ত্রী মেইন গেট খুলে দিলে দৌলতদিয়াড়ের বাদলপাড়ার পুকুর ছেলে রানা, দক্ষিণপাড়ার মিন্টুর ছেলে নাঈম, সর্দারপাড়ার মিরাজ ও তার ভাই সাহারিয়ারসহ আরো কয়েকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আমার ঘরে হামলা চালায়।

পৌর মেয়র ওবাইদুর রহমান চৌধুরী জিপু জানান, তিনি বর্তমানে ঢাকাতে অবস্থান করছেন। হামলার বিষয়টি মুঠোফোনে শুনেছেন। পরিবারের উপর হামলার বিষয়টি নিয়ে তিনি এর তীব্র নিন্দা জানান।

তিনি আরো বলেন, পরিবারের উপর হামলা এটা কোনো রাজনীতি হতে পারে না। এটা অসুস্থ রাজনীতি। শান্ত চুয়াডাঙ্গাকে অশান্ত করতে উঠে পড়ে লেগেছে এক শ্রেণীর কুচক্রী মহল।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন জানান, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ বিষয়ে দৌলতদিয়াড় দক্ষিণপাড়ার আব্দুল হালিম বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছে। সাথে সাথে পুলিশ অভিযুক্তদের ধরতে কাজ শুরু করেছে।