চূর্ণবিচুর্ণ পৃথিবীর স্তব্ধ প্রবাসীদের কথা জানতে চায় চ্যানেল সিক্স

প্রকাশিত

তুহিন সারোয়ার-

মহামারি করোনাভাইরাসে দিশেহারা পুরো পৃথিবী। ইউরোপের দেশগুলোর মতো মধ্যপ্রাচ্যেও প্রতিনিয়ত বাড়ছে এই ভাইরাস। সৌদি আরব, কুয়েত, আরব আমিরাত, কাতার, বাহরাইন, ওমানের মতো দেশগুলোতে করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে বন্ধ রয়েছে প্রায় সব ধরনের ব্যবসা-বাণিজ্য থেকে শুরু করে অফিস আদালত। চলছে লকডাউন ও কারফিউ।

কয়েক লাখ টাকা খরচ করে এসব প্রবাসীর কেউ এসেছেন নতুন ভিসায়, যাঁদের প্রতি মাসে ধারদেনা শোধ করতে হয়। একদিকে যেমন নিজে চলতে হয়, অন্যদিকে পরিবার চালাতে হয়। বিদেশে সংগ্রাম আর যুদ্ধ করে বেঁচে থাকতে হয় প্রতিনিয়ত। আর মাস শেষে যখন বেতনের টাকাগুলো হাতে আসে, তখন চোখ-মুখের ক্লান্তির ছাপ চলে যায় নিমেষেই। কিন্তু হঠাৎ এক মহামারি ভাইরাসে এলোমেলো করে দিল সব। চূর্ণবিচুর্ণ করে দিল পুরো পৃথিবী। স্তব্ধ হয়ে গেল পৃথিবী। থমকে গেল কোটি কোটি মানুষের স্বপ্ন বাস্তবায়নের পথচলা। কেউবা এখনো হাঁটছেন। তবে এর শেষ কোথায়, কেউ তা জানে না। এ থমকে যাওয়া জীবনের মধ্যেও মানুষের চাওয়ার শেষ নেই। কেউ দুবেলা খেয়ে বাঁচতে চায়, কেউবা না খেয়েও বেঁচে থাকতে চায়।

এমন পরিস্থিতিতে আতংকে রয়েছেন প্রবাসীরা, পাশাপাশি জীবন-জীবিকা দুর্বিষহ হয়ে পড়েছে নিন্ম আয়ের ও কর্মহীন প্রবাসীদের। এমন পরিস্থিতিতে দেখার কেউ নেই।

অসহায় হয়ে পড়েছেন প্রবাসী শ্রমজীবী মানুষ। অনেকেই আছেন চাকরি হারানোর ভয়ে। কাজ বন্ধ হওয়ার কারণে তাঁরাও আছেন বিপাকে। ইতিমধ্যে অনেক প্রতিষ্ঠান মাসিক বেতন কমিয়ে অর্ধেক করছে। কেউ কেউ বিনা বেতনে ছুটি দিয়েছেন কর্মীদের। অনেক প্রতিষ্ঠান আবার বেতনও দিতে পারেনি। অনেকে দেশে গিয়েও আর ফিরতে পারেননি।

প্রিয় প্রবাসী ,আপনার দুর্ভোগ আর দুর্বিষহ জীবনের কথাগুলো  ভিডিও করে  চ্যানেল সিক্স এর ফেসবুক পেইজে পাঠিয়ে দিন, আমরা আপনার দুর্ভোগ আর দুর্বিষহ জীবনের কথাগুলো প্রচার করাসহ প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়কে অবহিত করবো ।

আমরা , চেস্টা এবং উদ্বুদ্ধ করবো  সামাজিক সংগঠন এবং প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় আপনাদের এ দুঃসময়ে সহায়তায় আপনাদের পাশে থাকার জন্য ।