ছাত্রলীগ যদি কোনো অন্যায় করে থাকে অবশ্যই তার বিচার হবে : ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত

স্টাফ রিপোর্টার: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিজের কার্যালয়ে অবরুদ্ধ হওয়ার পর সেখানে যাওয়া ছাত্রলীগের ‘দায়িত্ব’ ছিল বলেই মনে করছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলছেন, ছাত্রলীগের কোনো দোষ থাকলে তাদের শাস্তি হবে। কিন্তু যারা ভিসি কার্যালয়ের ফটক ভেঙেছে, তাদেরও শাস্তি হওয়া উচিৎ। উপাচার্যের কার্যালয়ে ‘নিপীড়ন বিরোধী’ শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলার ঘটনায় সমালোচনার মধ্যেই সেতুমন্ত্রী কাদেরের এই মন্তব্য এল। গতকাল বুধবার ঢাকার মানিক মিয়া এভিনিউয়ে বিআরটিএ-এর ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম দেখতে গিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে ওবায়দুল কাদের বলেন, “জোর করে ভিসি অফিসে ঢুকবে, এখানে সাধারণ ছাত্রদের কি কোনো দায়িত্ব নেই? তারা ছাত্রলীগ করে, কিন্তু এর আগে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। ছাত্রী নিপীড়নে জড়িত ছাত্রলীগ কর্মীদের বহিষ্কারের দাবি পূরণ না হওয়ায় ‘নিপীড়নবিরোধী শিক্ষার্থী’ ব্যানারে গত মঙ্গলবার দুপুরে উপাচার্যের কার্যালয় ঘেরাও করে একদল শিক্ষার্থী, যাদের মধ্যে সক্রিয় ছিলেন বাম ছাত্র সংগঠনগুলোর নেতারা। অন্তত তিনটি ফটক ভেঙে তারা অবস্থান নেন উপাচার্যের দরজার সামনের করিডোরে। তিন ঘণ্টার বেশি সময় অবরুদ্ধে থাকার পর উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামান পেছনের ফটক দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করলেও আন্দোলনকারীরা তাকে আটকে দেয়। পরে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইনের নেতৃত্বে ছাত্রলীগের একটি দল উপাচার্যকে অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে মুক্ত করতে যায়। সরকার সমর্থক সংগঠনটির নেতা-কর্মীরা সে সময় রড-লাঠি নিয়ে চড়াও হন বিক্ষোভকারীদের ওপর; উপাচার্য ভবন থেকে থেকে সরিয়ে দেওয়ার পরও বিভিন্ন স্থানে কয়েক দফায় হামলা হয় বলে বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ। এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে ছাত্রলীগের এক সময়ের সভাপতি ওবায়দুল কাদের বলেন, একটা দিক দেখলেন, আরেকটা দিক দেখলেন না? এই যে আরেকটা সাইড ভিসির অফিসের গেইট ভেঙে ঢোকার কি কোনো নিয়ম আছে? এটা কি কোনো গণতান্ত্রিক পন্থা? এটা কি আন্দোলনের অংশ? আর ছাত্রলীগের এখানে অংশগ্রহণ কী? ভিসি বলেছেন, ছাত্রলীগের ছেলে মেয়েরা যদি এসে উদ্ধার না করত, তাহলে তার জীবনের উপর হামলার আশঙ্কা থাকত। তিনি আমাকে বলেছেন, যেভাবে অ্যাটাক করা হয়েছে কলাপসিবল গেইট ভেঙে।
ওবায়দুল কাদের বলেন, জোরপূর্বক ভিসি অফিসে ঢোকা হয়েছে, এটা কি গণতান্ত্রিক আন্দোলন? আর এখানে ছাত্রলীগের ইনভলভমেন্ট কেন, সেটাও ভিসি আমাকে বলেছেন। তাকে অবরুদ্ধ করার পরেই ছাত্রলীগ সেখানে গেছে, সাথে সাধারণ ছাত্রছাত্রীরাও গেছে। মঙ্গলবারের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ ‘যদি কোনো অন্যায় করে থাকে’ তাহলে, ‘অবশ্যই’ তাদের শাস্তি পেতে হবে বলে মন্তব্য করেন সরকারের এই মন্ত্রী। পাশাপাশি তিনি এও বলেন, যারা গেইট ভেঙে ভিসি অফিসে ঢুকেছে, তাদেরও শাস্তি হওয়া উচিৎ।