জগন্নাথপুরে নারী নির্যাতন মামলার পলাতক আসামী দিলদার গ্রেফতার

প্রকাশিত

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি-
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর থানা পুলিশের অভিযানে নারী নির্যাতন মামলায় আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা ভূক্ত পলাতক আসামী সৈয়দ দিলদার আলীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সে উপজেলার রাণীগঞ্জ ইউনিয়নের গন্ধর্বপুর গ্রামের মন্তাজ উল্লার ছেলে। জগন্নাথপুর থানার এসআই শফিকুল ইসলাম ও এএসআই মুক্তার হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশ দল অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করেন। গ্রেফতারকৃত আসামীকে ৮ জানুয়ারি শুক্রবার সুনামগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। জগন্নাথপুর থানার এসআই রাজিব রহমান নিশ্চিত করেছেন।
ভূক্তভোগী পরিবার জানান, বিগত ৪ বছর আগে সৈয়দ দিলদার আলীর সাথে স্থানীয় মকবুলাবাদ গ্রামের মৃত ডা.হুসিয়ার আলীর কন্যার বিয়ে হয়। সংসার জীবনের তাদের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। তবে বিয়ের কিছু দিন পর সৈয়দ দিলদার আলী তার স্ত্রীর ভাইকে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে ৩ লাখ টাকা নিলেও বিদেশ পাঠায়নি। এ নিয়ে তাদের দাম্পত্য জীবনে ঝগড়া-বিবাদ ও অশান্তির সৃষ্টি হয়। ঘটে স্ত্রী নির্যাতনের ঘটনা। বিষয়টি সমাধানে অনেকবার চেষ্টা করা হলেও সম্ভব হয়নি। এর মধ্যে গত ৩ বছর ধরে সন্তান নিয়ে পিত্রালয়ে বসবাস করছেন নির্যাতিত স্ত্রী। অবশেষে গত ২০১৯ সালে সেই নির্যাতিত গৃহবধূ বাদী হয়ে তার অত্যাচারী স্বামীকে আসামী করে সুনামগঞ্জ আদালতে নারী নির্যাতন মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় আদালত আসামীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করলে জগন্নাথপুর থানা পুলিশ আসামী দিলদার আলীকে গ্রেফতার করেছে।
এছাড়া জগন্নাথপুর ও দিরাই থানা পুলিশের যৌথ অভিযানে মাদক মামলায় এক বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী ইব্রাহিম আলীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সে দিরাই উপজেলার পেরুয়া গ্রামের মৃত সুরুজ আলীর ছেলে। সে দীর্ঘদিন ধরে জগন্নাথপুর পৌর এলাকার হাবিবনগর গ্রাম এলাকায় বসবাস করে আসছিল।