জনপ্রিয় তারকা দম্পতি শাকিব-অপুর বিবাহ বিচ্ছেদ কার্যকর হয়নি

প্রকাশিত

বিনোদন প্রতিবেদক :জনপ্রিয় তারকা দম্পতি শাকিব খান-অপু বিশ্বাস। গত এক বছর এই দম্পতিকে ঘিরে আলোচনা-সমালোচনা যেন থামছেই না। বিয়ের কথা ফাঁস করে দেয়া, সন্তানকে রেখে অপুর কলকাতা যাওয়া ইত্যাদি নিয়ে তাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব তৈরি হয়।

গত ২২ নভেম্বর অপুকে বিবাহ বিচ্ছেদের চিঠি পাঠান শাকিব। এরপর বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়, তিনমাস পর কার্যকর হবে শাকিব-অপুর বিবাহ বিচ্ছেদ। সেই হিসেবে আজ (২২ ফেব্রুয়ারি) শাকিবের বিবাহ বিচ্ছেদের চিঠি পাঠানোর তিন মাস পূর্ণ হয়েছে। তবে এখনো শাকিব-অপুর বিবাহ বিচ্ছেদ কার্যকর হয়নি বলে জানিয়েছেন ঢাকা সিটি করপোরেশনের (অঞ্চল-৩) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হেমায়েত হোসেন।

এ প্রসঙ্গে হেমায়েত হোসেন বলেন, ‘শাকিব খান যেদিন স্বাক্ষর করেছিলেন, সেদিন থেকে তিন মাস পর কার্যকর হবে ব্যাপারটা এমন নয়। আমরা সিটি করপোরেশন তাদের তিন মাসে তিনবার ডাকব, সেই তৃতীয়বার বিষয়টির ফয়সালা হবে। যে কারণে আজ তাদের বিচ্ছেদ বা পুনরায় সংসার শুরু কোনোটাই হচ্ছে না।’

তিনি আরো বলেন, ‘আগামী ১২ মার্চ তৃতীয় ও শেষবারের জন্য তাদের আবারো ডাকা হয়েছে। এদিন যদি তারা না উপস্থিত হন, তাহলে বিবাহবিচ্ছেদ কার্যকর হয়ে যাবে।’

এর আগে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে সালিশি বৈঠকের আয়োজন করা হয়। এতে শাকিব-অপুকে উপস্থিত থাকার জন্য বলা হয়। গত ১৫ জানুয়ারি সিটি করপোরেশনের অঞ্চল ৩-এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. হেমায়েত হোসেনের সঙ্গে তালাক নোটিশের বিপরীতে সমঝোতা বৈঠকে বসেন অপু। সালিশি বৈঠকে অপু বিশ্বাস উপস্থিত হলেও শাকিব খান কিংবা তার পক্ষ থেকে কেউ উপস্থিত ছিলেন না। এরপর গত ২ ফেব্রুয়ারি পুনরায় সালিশি বৈঠক ডাকা হয়। এতে শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস উপস্থিত ছিলেন না।

দীর্ঘ আট বছর গোপনে সংসার করার পর অপুর কোলজুড়ে আসে পুত্র আব্রাহাম খান জয়। প্রায় বছরখানেক আগে অপু বিশ্বাস সংবাদমাধ্যমে তাদের বিয়ের খবর জানান। এরপর থেকেই শাকিব-অপুর সম্পর্কটা ভালো যাচ্ছিল না।