জন্মদিনের উৎসবে চিরবিদায়

প্রকাশিত

জন্মদিনের উৎসবে আনন্দে মেতেছেন অতিথিরা। হঠাৎ আগুন। মারা গেলেন অনেকেই। যাঁর জন্মদিন, তিনি কোথায়? পাওয়া গেল তাঁকেও। ১৪ জনের লাশের মধ্যে ২৮ বছরের ওই নারীকে শনাক্ত করলেন তাঁর প্রেমিক।

এনডিটিভি অনলাইনের খবরে জানা যায়, ভারতের মুম্বাইয়ের কমলা মিলস কমপ্লেক্সে গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ড ঘটে। আগুনে পুড়ে যে ১৪ জন মারা যান, তাঁদের বেশির ভাগই নারী। তাঁদের বয়স ২০ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে।

প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তিরা বলছেন, বেশির ভাগ লাশই পাওয়া যায় নারীদের প্রসাধনকক্ষের কাছে। পুলিশ বলছে, ধোঁয়ায় দম আটকে তাঁদের মৃত্যু হয়েছে।

কমলা মিলস কমপ্লেক্সের ছাদের ওপর থাকা রেস্তোরাঁয় জন্মদিনের উৎসবের আয়োজন করা হয়েছিল। সাজানোর জন্য রেস্তোরাঁর যে ছাদটি আলাদাভাবে তৈরি করা হয়েছিল, তা ছিল সহজে দাহ্য পদার্থ দিয়ো তৈরি। এতে আগুন লাগার পর তা খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। অগ্নিকাণ্ডের সময় সেখানে ১৫০ জন মানুষ উৎসবে অংশ নিয়েছিলেন।

মুম্বাই শহরের কেন্দ্রে কমলা মিলস। এই এলাকায় অনেক রেস্তোরাঁ এবং ক্যাফে রয়েছে। রাতের বেশির ভাগ উৎসব চলে এই রেস্তোরাঁয়। এই এলাকায় বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমের কার্যালয়ও রয়েছে। অগ্নিকাণ্ডের কারণে কয়েকটি চ্যানেলের সম্প্রচারকাজ বাধাগ্রস্ত হয়।

আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে তিন ঘণ্টারও বেশি সময় লাগে। রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে পুলিশ মামলা করেছে।

মুম্বাইয়ের চিকিৎসক সুলভা কেজি অরোরা অগ্নিকাণ্ডের সময় ওই রেস্তোরাঁয় ছিলেন। এক টুইটে ওই ভয়ংকর অভিজ্ঞতার কথা বর্ণনা করে তিনি বলেন, কিছু বুঝে ওঠার আগেই মুহূর্তের মধ্যে পুরো এলাকা ধোঁয়ায় ছেয়ে যায়। চারদিকে চিৎকার শুরু হয়। সবাই ছোটাছুটি শুরু করে। কেউ আমাকে ধাক্কা দেয়। মানুষ আমার ওপর দিয়ে দৌড়াতে শুরু করে। নিজেও জানি না কীভাবে আমি বেঁচে ফিরলাম।

Be the first to write a comment.

Leave a Reply