জিয়া খানের আত্মহত্যায় সুরজ পাঞ্চোলির প্ররোচনা, মামলা এবার সিবিআই আদালতে

প্রকাশিত

অনলাইন ডেস্ক-

অভিনেত্রী জিয়া খানের আত্মহত্যায় সুরজ পাঞ্চোলির প্ররোচনা দেওয়ার মামলা এবার সিবিআই আদালতে উঠল। এত দিন মুম্বাই পুলিশ এবং কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা তদন্ত করছিল। ২০১৯ সালে মামলা শুরু হলেও তা এগোয় ধীরগতিতে। সিবিআই আদালতে মামলা ওঠায় এ বার দ্রুত ফয়সালা হবে বলে আশাবাদী সুরজের পরিবার।

সুরজের আইনজীবী প্রশান্ত পাটিল জানান, “সেশন কোর্ট এই মামলাটি সিবিআই আদালতে নিয়ে যাওয়ার অনুমতি দিয়েছে। আমার মক্কেলের জন্য এটি ভাল খবর। মামলাটি যাতে দ্রুত এগোয় এবং ছয় মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি হয়, তার জন্য আমরা আবেদন করেছিলাম। আমাদের আবেদন মঞ্জুরও হয়েছিল। কিন্তু তার পরেও মামলা ধীরগতিতে চলেছে।”

এ বার খুব শীঘ্রই মামলার শুনানি হবে বলে আশা করছেন সুরজের আইনজীবী।

২০১৩ সালে জিয়ার জুহুর বাড়িতে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায় তাকে। অভিনেত্রীর মৃত্যুকে প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যা বলে ধরে নেওয়া হয়। ২০১৬ সালে তদন্তের পর সিবিআই সেই সিদ্ধান্তে শিলমোহর বসায়। বম্বে হাইকোর্টও সেই সময় জিয়ার মৃত্যুকে আত্মহত্যা বলে। ২০১৭ সালে জিয়ার মা রাবিয়া খান দাবি করেন, অভিনেত্রীর প্রেমিক সুরজ পঞ্চোলি তাকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেন। সুরজের বিরুদ্ধে খুন এবং যৌন হেনস্থার অভিযোগ দায়ের করতে চাইলেও সফল হননি রাবিয়া। জিয়ার মৃত্যুর পাঁচ বছর পর মুম্বাইয়ের একটি আদালতে সুরজের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মামলাটি ওঠে।