জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ আহরণ-উত্তোলনে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার তাগিদ

প্রকাশিত

ডেক্স নিউজঃ নিজস্ব জ্বালানি ও খনিজ  সম্পদ আহরণ এবং উত্তোলনে সুনির্দিষ্ট ও স্বল্পমেয়াদি পরিকল্পনা দ্রুত নেওয়ার তাগিদ দিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

তিনি বলেন, পাথরের চাহিদা রয়েছে, সরবরাহ চ্যানেল ভালো করা গেলে দেশের সর্বত্র এর চাহিদা বাড়বে। পুরানো গ্যাস ফিল্ডগুলো হরিজন্টাল বা unconventional way drilling করার বিষয়টিও যাচাই বাচাই করা প্রয়োজন।

শনিবার (২৫ এপ্রিল) প্রতিমন্ত্রী তার বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের আওতায় বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পসমূহের অনুকূলে  ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের আরএডিপি বরাদ্দ ও মার্চ ২০২০ পর্যন্ত অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে প্রকল্প নির্ধারণ করতে হবে। গ্যাস উত্তোলন, কম্প্রেসার ক্রয়, পাইপলাইন নির্মাণ বা অন্যান্য প্রকল্পে অগ্রাধিকারের স্তর নির্ধারণ করে দ্রুত পরিকল্পনা গ্রহণ করা আবশ্যক।

জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের আওতায় জিওবি ও বৈদেশিক সহায়তাপুষ্ট ৮টি, নিজস্ব অর্থায়নে বাস্তবায়নাধীন ১৬টি ও জিডিএফ অর্থায়নে বাস্তবায়নাধীন  ৮টি অর্থাৎ মোট ৩২টি  প্রকল্প রয়েছে।

এসব প্রকল্প নিয়ে আলোচনাকালে প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, প্রকল্প বাস্তবায়নে কোনো সমস্যা হলে দ্রুততার সঙ্গে দ্বি-পাক্ষিক, ত্রি-পাক্ষিক বা বহু-পাক্ষিক সভা করে সমস্যার সমাধান করতে হবে।

এসময় তিনি সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সচেতন থেকে দায়িত্ব পালনেরও অনুরোধ করেন।

ভাচ্যুয়াল এ সভায় অন্যান্যের মধ্যে জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব আনিছুর রহমান, বিপিসির চেয়ারম্যান সামছুর রহমান ও পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান এ বি এম আবদুল ফাত্তাহ উপস্থিত ছিলেন।