দি ইনডিপেন্ডেন্ট পত্রিকার ফরিদপুর প্রতিনিধি আব্দুল মতিন ফকির আর নেই

প্রকাশিত

মাহবুব হোসেন পিয়াল,ফরিদপুর-
ফরিদপুরের প্রবীন সাংবাদিক ও শিক্ষাবিদ দি ইনডিপেন্ডেন্ট পত্রিকার ফরিদপুর প্রতিনিধি অধ্যাপক আব্দুল মতিন ফকির (৭৮) আর নেই। মঙ্গলবার (৭আগষ্ট) রাত পৌনে ৯ টায় ফরিদপুর ডায়াবেটিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাহে রাজিউন)। তিনি লিভার ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৩ ছেলে, ১ মেয়ে, আত্মীয় স্বজন, সহকর্মীসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

আব্দুল মতিন ফকির এর মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে তার দীর্ঘদিনের সহকর্মীরা ডায়াবেটিক হাসপাতালে ছুটে যান। এসময় সেখানে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারনা হয়।

প্রবীন সাংবাদিক ও শিক্ষাবিদ আব্দুল মতিন ফকির ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলায় জন্মগ্রহন করেন। শিক্ষাজীবন শেষে সরকারি ইয়াছিন কলেজে শিক্ষকতা শুরু করেন। আব্দুল মতিন ফকির এসোসিয়েট প্রফেসর হিসেবে সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজ থেকে ২০০৮ সালে অবসর গ্রহন করেন।

শিক্ষকতার পাশাপাশি তিনি জাতীয় ইংরেজি দৈনিক দি ইনডিপেন্ডেন্ট পত্রিকার ফরিদপুর প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করতেন। মৃত্যু পর্যন্ত তিনি এ পত্রিকার সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। ব্যক্তিজীবনে তিনি অত্যন্ত অনারম্বর জীবনযাপন করতেন। শিক্ষকতা ও সাংবাদিকতার পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন।

বুধবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় ফরিদপুর প্রেসক্লাব চত্বরে মরহুম অধ্যাপক আব্দুল মতিন ফকিরের বিদেহী আত্মার মাগফিরাতের জন্য দোয়া করা হয় এবং পুস্পমাল্য অর্পন করে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ ইমতিয়াজ হাসান রুবেল সহ সকল সদস্যগন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
মরহুমের নামাযে জানাযা ফরিদপুরের চকবাজার জামে মসজিদে বাদ যোহর অনুষ্ঠিত হয়। পরে তাঁকে আলীপুর গোরস্থানে দাফন করা হয়।
প্রবীন এ সাংবাদিকের মৃত্যুতে ফরিদপুরের বিভিন্ন সামাজিক,সাংস্কৃতিক,রাজনৈতিক সংগঠন ও ব্যক্তিবর্গ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।