নরসিংদীতে এসএমই পণ্য মেলা-২০১৮’র সমাপনী প্রধানমন্ত্রীর গতিশীল নেতৃত্বই জাতীয় অর্থনীতিতে গতির স ার করেছে — এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন

প্রকাশিত

নরসিংদী প্রতিনিধিঃ জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)’র চেয়ারম্যান সিনিয়র সচিব মো: মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া এসএমই পণ্য মেলা-২০১৮’র সমাপনী অনুষ্ঠানে “দেশের অগ্রগতির অন্যতম কারণ হচ্ছে ক্ষুদ্র ও মাঝারী শিল্পের বিকাশ” উক্তি করে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, ক্ষুদ্র ও মাঝারী শিল্পের বিকাশই দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। দেশের কর্মক্ষেত্রে বিভিন্ন সুযোগ সৃষ্টি হওয়ায় প্রতিটি মানুষ আজ কাজ করে আয়-রোজগারের মাধ্যমে অর্থ উপার্জনের সুযোগ পাচ্ছে। বিগত দিনে পরিবারের একজনের আয়ের উপর নির্ভর করতো গোটা পরিবার। এখন একটি পরিবারের প্রত্যেকেই কিছু না কিছু আয় করে। আর এই সুযোগটিই সৃষ্টি করেছেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর গতিশীল নেতৃত্বই জাতীয় অর্থনীতিতে গতির স ার এনে দিয়েছে। তিনি ২২ জানুয়ারী সন্ধ্যায় নরসিংদী শিল্পকলা একাডেমী মিলায়তনে এসএমই পণ্য মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে উপর্যুক্ত মন্তব্য করেন। নরসিংদী জেলা প্রশাসক ড. সুভাষ চন্দ্র বিশ^াস’র সভাপতিত্বে পণ্য মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন, সদর উপজেলা পরিষদ’র চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মনজুর এলাহী, এসএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান সফিকুল ইসলাম, এনসিসিআই’র সাবেক প্রেসিডেন্ট ফজলুল হক প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে এনবিআর’র চেয়ারম্যান সিনিয়র সচিব মোশাররফ হোসেন তথ্য প্রকাশ করে বলেন, ২০০৭-২০০৮ সালে সমগ্র পৃথিবীতে অর্থনৈতিক মন্দা দেখা দিয়েছিল। সেই মন্দায় ইউরোপসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের অর্থনীতিতে ধ্বস নেমেছিল। শুধু তাই নয়, আমেরিকার মতো একটি সমৃদ্ধশালী দেশের অর্থনীতিতেও চরম ধ্বসের সৃষ্টি হয়েছিল। কিন্তু সমগ্র পৃথিবীর অর্থনীতির এই দুর্বিপাকেও বাংলাদেশের অর্থনীতিতে কোন প্রকার নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়নি। আমাদের ক্ষুদ্র ও মাঝারী কুটির শিল্পের অর্থনীতির চাকাকে গতিশীল রেখেছিল। তিনি আরো বলেন, নরসিংদীর এসএমই পণ্য মেলায় একজন উদ্যোক্তা ১০ লাখ টাকারও বেশী পণ্য বিক্রি করেছেন। এমন অনেক উদ্যোক্তাই প্রায় সমসংখ্যক পণ্য বিক্রি করেছে। ৫০ লাখের বেশী পণ্য বিক্রি করেছেন অনেকেই। ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা এসএমই পণ্য মেলার মাধ্যমে তাদের উৎপাদিত ও সংগৃহীত পণ্য ক্রেতাদের সামনে প্রদর্শন করার সুযোগ পেয়েছেন। ক্রেতারাও তাদের চাহিদা মাফিক পণ্য ক্রয়ের সুযোগ পেয়েছে। এ ধরনের পণ্য মেলা জাতীয় উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখতে সক্ষম।
তিনি অনুষ্ঠানিকভাবে পণ্য মেলায় অংশগ্রহনকারী রিজেন্ট ফেব্রিক্সকে প্রথম, নকশা কাঁথা এন্টারপ্রাইজকে দ্বিতীয় ও স্বপ্নিল ক্লথস্’কে তৃতীয় পুরস্কার প্রদান করেন।