নরসিংদীর শিবপুরে এক শিশুর সাথে এক বৃদ্ধের একেমন অমানবিকতা

প্রকাশিত
নরসিংদী প্রতিবেদক : শিশু নাজমুলের (৬) সঙ্গে দুষ্টুমিতে জড়ান এক বৃদ্ধ। একপর্যায়ে নাজমুলকে ধাওয়া করে ধরে গরুর রশির সঙ্গে দুই হাত বেঁধে দেন তিনি।
পরে পিচের রাস্তায় গরু ছেড়ে দেন। এতে গরু দৌড় দিলে শিশু নাজমুল রাস্তায় পড়ে যায়। আর গরু তাকে নিয়ে যায় টেনেহিঁচড়ে। ফলে নাজমুলের পেটসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে চামড়া উঠে  যায়। সে ছুটতে কোন কায়দা না পেয়ে হাউ মাউ করে কেঁদে উঠে।
এমন এক অমানবিক ঘটনার অভিযোগ উঠেছে নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার মাছিমপুর ইউনিয়নের মিয়ারগাঁও গ্রামের শওকত আলীর (৫০) বিরুদ্ধে।
৩০ এপ্রিল শুক্রবার  সন্ধ্যায় ওই গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত নামজুল (৬) মিয়ারগাঁও গ্রামের মৃত আলম মিয়ার ছেলে। অভিযুক্ত শওকত আলী একই গ্রামের মৃত রওশন আলীর ছেলে।
১ মে শনিবার  সকালে তাকে নিয়ে স্থানীয় লোকজন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করলে ঘটনাটি জানাজানি হয়। নাজমুলের পরিবার জানায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় নাজমুলের সঙ্গে দুষ্টুমিতে জড়ান শওকত আলী। একপর্যায়ে নাজমুলকে ধাওয়া করে ধরে গরুর রশির সঙ্গে দুই হাত বেঁধে পিচের রাস্তায় গরু ছেড়ে দেন।
এতে গরু দৌড় দিলে নাজমুল রাস্তায় পড়ে যায়। তখন গরু তাকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যায়। ফলে পেটের অংশের বেশ কিছু জায়গায় চামড়া উঠে যায়।
মুঠোফোনে কথা হয় নাজমুলের ফুফাতো বোন সুমি আক্তারের সঙ্গে। তিনি  বলেন, আমরা এর বিচার চাই। একটা বাচ্চা ছেলের সঙ্গে কেউ এ রকম করতে পারে না। এ বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। এ ব্যাপারে শিবপুর মডেল থানার  ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাউদ্দিন মিয়া জানান এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।