নাটোরে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে মাদ্রাসা শিক্ষক গ্রেফতার

প্রকাশিত

নাটোর প্রতিনিধি-

নাটোরে ৯ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে পারভেজ নামে এক মাদরাসা শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে নাটোর সদর উপজেলার সিংগারদহ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত শিশুটিকে উদ্ধার করে নাটোর সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আটক শিক্ষক পারভেজ নাটোর সদর উপজেলার সিংগারদহ গ্রামের ইউসুফ আলীর ছেলে বলে জানা গেছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, হাফেজ পারভেজ নাটোর শহরের কান্দিভিটা হাফিজিয়া মাদরাসার একজন শিক্ষক। করোনার কারণে মাদরাসা বন্ধ থাকায় সে গ্রামের বাড়িতে কিছু শিশুদের কোরআন
শিক্ষা দেয়া শুরু করেন। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বাচ্চাদের ছুটি দিলেও ওই শিশুটিকে থাকতে বলে। এরপর শিশুরা চলে গেলে হাফেজ ওই শিশুটিকে ধর্ষণ চেষ্টা করে। এসময় শিশুটির চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে পারভেজ পালিয়ে যায়। পরে আহত অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে পরিবারের লোকজন নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

নাটোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীল আলম জানান, এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ দেয়া হলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুপুরে সিংগারদহ মাঠের মধ্য থেকে পারভেজকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মঞ্জুর রহমান জানান, শিশুটির অনেক রক্তক্ষরণ হয়েছে। তার সুস্থ হতে সময় লাগবে।