নড়াইলে বৃদ্ধ মাকে বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছেন সন্তান, পাশে দাঁড়ালেন জেলা প্রশাসন 

প্রকাশিত

নড়াইল প্রতিনিধি :
নড়াইলে ৮৫ বছর বয়সী এক বৃদ্ধা মাকে তার দুটি সন্তান ভরণ পোষণ না দেয়ায় ১২দিন ধরে এস,এম সুলতানের নৌকা “শিশুস্বর্গের ’ নিচেয় আশ্রয় নিয়েছেন। বিষয়টি বিভিন্ন মিডিয়াতে ছড়িয়ে পড়লে শুক্রবার সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসক আনজুমান আরার নির্দেশে তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
জানা গেছে, নড়াইল শহরের কুড়িগ্রাম এলাকার বাসিন্দা মৃত কালিপদ কুন্ডুর স্ত্রী মায়া রাণী কুন্ডুর দুটি সন্তান ছেলে সন্তান রয়েছে। দেব কুন্ডু ও উত্তম কুন্ডু নামে দুটি ছেলে ব্যবসার সাথে জড়িত রয়েছে। তাদের মায়ের নামে ৫শতক জমি লিখে নেয়ার পর তাদের মায়ের ভরণ পোষণ বন্ধ করে দেয়। গত দেড় বছর ধরে ওই অসহায় মা আশেপাশের বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে জীবনযাপন করছিলেন। সর্বশেষ গত ১২দিন ধরে এসএম সুলতান কমপ্লেক্স সংলগ্ন চিত্রা নদীর পাড়ে রক্ষিত শিল্পী সুলতানের নৌকা “শিশুস্বর্গের” নিচেয় আশ্রয় নেন অসহায় মা।
এ ব্যাপারে দেব কুমার জানান, মাকে আমরা বের করে দিইনি, তিনি স্বেচ্ছাই বাড়ী থেকে আত্মীয়ের বাড়ি চলে গিয়েছিল। হঠাৎ করে এসে তিনি আর বাড়ী যাননি, আমরা জানতে পেরে তাকে নিতে এসেছি। আজ শনিবার বেলা ১২ টার দিকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ঐ বৃদ্ধা মহিলাকে দেখতে যান জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা। সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডাঃ মশিউর রহমান বাবু, সহকারি কমিশনার (ভূমি) কৃষ্ণা রায়সহ অনেকে এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা জানান,ওই অসহায় মাকে শুক্রবার নড়াইল জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার শারীরিক অবস্থা খারাপ থাকায় তাকে সদর হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এখানে তার ছেলে , ছেলে বউ এসেছে, তারা তার মাকে ফিরিয়ে নিয়ে যাবে বলে আমাদের কথা দিয়েছে। বৃদ্ধা মার যাতে কোন সমস্যা না হয় সে দিকে আমরা খেয়াল রাখছি। আর যেন কেউ এ রকম কাজ না করে সে দিকেও আমরা নজর রাখছি।

Be the first to write a comment.

Leave a Reply