পদ্মা সেতু নয়, খালেদার রাজনীতি জোড়াতালির

প্রকাশিত

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, পদ্মা সেতু জোড়াতালির নয়, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনীতিই জোড়াতালির খিচুড়িতন্ত্র।

আজ বুধবার সন্ধ্যায় ঢাকায় শিল্পকলা একাডেমির সংগীত ও নৃত্যকলা মিলনায়তনে কেটিভি বাংলা অনলাইন টেলিভিশনের লোগো উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন। খবর বাসসের।

সরকারের এ আমলে পদ্মা সেতু নির্মাণ করতে পারবে না দাবি করে মঙ্গলবার ছাত্রদলের অনুষ্ঠানে খালেদা জিয়া বলেন, ‘এখন পদ্মা সেতুর স্বপ্ন দেখাচ্ছে। কিন্তু পদ্মা সেতু এই আওয়ামী লীগের আমলে হবে না। আর সেই সেতুতে ওঠার জন্য…একটি যদি জোড়াতালি দিয়ে বানায়, সেই সেতুতে কে উঠতে যাবেন না। অনেক রিস্ক (ঝুঁকি) আছে।’

খালেদা জিয়ার এ মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আর শেখ হাসিনার স্বপ্নমাখা পদ্মা সেতুর ওপর ভরসা রাখা যায়, কিন্তু তাঁর (খালেদা জিয়া) ওপর ভরসা রাখা যায় না। কারণ, খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের মুখোশ পরে নির্বাচন বানচাল করতে চান, আগুনযুদ্ধ করেন, জঙ্গি-রাজাকার-জামায়াত পোষেন।

খালেদা জিয়াই বলেছিলেন, শান্তি চুক্তি হলে ফেনী পর্যন্ত ভারত হয়ে যাবে। সেই ফেনী থেকে নির্বাচন করে সংসদে এসেছিলেন, ফেনী ভারত হয়নি উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘শিগগিরই খালেদা তাঁর কথা ভঙ্গ করে পদ্মা সেতু দিয়ে গাড়ি চালিয়ে এপার-ওপার যাবেন, আর যদি তাঁর কথা রাখেন, তবে কোনো দিনও পদ্মা সেতুতে উঠবেন না, নিচ দিয়েই যাবেন।’ ইনু বলেন, ‘খালেদা জিয়াই গণতন্ত্র, সামরিকতন্ত্র আর ধর্মতন্ত্রের একটু করে নিয়ে জোড়াতালির খিচুড়িতন্ত্রের ধারক-বাহক। সে কারণেই গণতন্ত্রের রাজনীতিতে তিনি পরিত্যাজ্য।’

কেটিভি অনলাইনকে অভিনন্দন জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, শিগগিরই অনলাইন ও আইপি টিভি পরিচালনার বিস্তারিত নীতি-পদ্ধতি প্রকাশ করবে সরকার। অনলাইন টেলিভিশনটির চেয়ারম্যান মো. মামুনুর হাসান টিপুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক সাংসদ মকবুল হোসেন, কেটিভি অনলাইনের প্রধান উপদেষ্টা সৈয়দ শাহ মুহাম্মদ জুনায়েদ ও উপদেষ্টা মুর্তজা আলী চৌধুরী