পুরোনো রূপেই সিলেট নগরী

প্রকাশিত
সিলেট প্রতিনিধি-

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকারি নির্দেশনায় কাগজে-কলমে লকডাউন অব্যাহত থাকলেও বাস্তবে সিলেটে লকডাউনের ছিটে-ফোঁটাও চোখে পড়ছে না। তৃতীয় দফা লকডাউন ঘোষণার আগ পর্যন্ত লকডাউনে সিলেট মহানগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ও পয়েন্টগুলোতে ব্যারিকেড, চেকপোস্ট এবং পুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর টহল ও নজরদারির কারণে কমসংখ্যক মানুষ রাস্তায় বের হচ্ছিলেন।

কিন্তু ২২ এপ্রিল ঘোষিত লকডাউনের প্রথম দিন থেকে সিলেটে শিথিল হতে শুরু করে পুলিশের চেকপোস্ট ও নজরদারি। এরই মাঝে গত ২৪ এপ্রিল থেকে মার্কেট ও শপিংমল খুলে দেয়ায় রাস্তাঘাটে মানুষের ভিড় বাড়তে থাকে। বর্তমানে এ পরিস্থতি ভয়াবহ। করোনাকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে সবাই ছুটছে মার্কেট-শপিং মলে, ঈদের কেনাকাটা করতে।

সিলেট নগরীর বিভিন্ন এলাকা ও মার্কেট ঘুরে দেখা গেছে, রাস্তাঘাটে মানুষের আনাগোনা আগের চেয়ে কয়েকগুণ বেড়েছে। গণপরিবহনের মধ্যে শুধু বাস ছাড়া রাস্তায় অন্যান্য বিভিন্ন যানবাহন চলাচল করছে নির্বিঘ্নে। কঠোর লকডাউন চলাকালে যেসব রাস্তা ও পয়েন্টে ব্যারিকেড দিয়ে যে চেকপোস্ট তৈরি করা হয়েছিল, সেগুলোর বেশিরভাগে পুলিশ নেই। দু-একজন থাকলেও তারা নিরব দর্শকের ভূমিকায়। নেই মোবাইল কোর্টও।

কিন্তু সিলেটে এসব নীতিমালাকে তোড়াই তোয়াক্কা করছেন ক্রেতা-বিক্রেতারা। এতে সিলেটে করোনা আরও ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে আশঙ্কা প্রকাশ করছেন সংশ্লিষ্টরা।