প্রবাসীর জমি দখলের চেষ্টা বাঁধা দেয়ায় বোন ও বৃদ্ধ মাকে মারধরের অভিযোগ

প্রকাশিত

নিজস্ব প্রতিবদেক :
টঙ্গীর মুদাফা এলাকায় প্রবাসী আবুল হোসেনের লাগানো গাছপালা ও বসত বাড়ির মাঠি কেটে নিয়ে জমি দখলের চেষ্টা করছে স্থানীয় মোজাম্মেল ডাক্তার (৭০) মাসুদ (৪০), জাকির (৩০) শহিদ (৬৫) ও আবু সাঈদ (৩৫) নামে স্থানীয় ভুমিদশ্যুরা। এতে বাঁধা দেয়ায় জমির মালিক বিউটি আক্তার (২৮) ও তার বৃদ্ধ মা জয়নব বিবি (৬৫) কে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় থানায় অভিযোগ ও সাধারণ ডায়রী হয়েছে।


অভিযোগকারীনি জয়নব বিবি জানান, ২০০৮ ইং সালের ৭ সেপ্টেম্বর স্থানীয় সাতাইশ এলাকার বাসিন্দা মৃত কুদ্রত আলীর ছেলে আব্দুল মজিদের কাছ থেকে চার সমস্ত বিশ ভাগের উনিশ শতক সমান ৩ কাটা জমি সাফ কবলা দলিল নং-১৫৭৩৫ মূলে আমার প্রবাসী ছেলে আবুল হোসেন ও মেয়ে বিউটি আক্তার ক্রয় করে। সে সময় জমি বিক্রেতা উপরোক্ত জমি ব্যতিত ১০ ফুট জমি রাস্তার জন্য দান করেন। জমিটি ক্রয়ের পর প্রবাসী আবুল হোসেন ও তার বোন বিউটি আক্তার উক্ত জমিতে পৌর সভার প্লান নিয়ে ৬ তলা ফাউন্ডেশনের বাড়ি নির্মাণের কাজ শুরু করেন এবং বাড়ির সামনে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ লাগান। কিন্তু জনৈক মোজাম্মেল ডাক্তারের ভায়রা ১০ ফুট রাস্তার জমি জবর দখল করে বাড়ির সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করেন এবং প্রবাসী আবুল হোসেনের লাগানো গাছ এবং বাড়ির সীমানার ভেতর থেকে ১০ ফুট রাস্তা দাবী করে মাঠি কেটে নিয়ে জমিটি জবর দখলের চেষ্টা করেন। এনিয়ে এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ স্থানীয় ভাবে একাধিকবার আপোষ মিমাংশার জন্য বসার চেষ্টা করে। কিন্তু জবর দখলদারগন কোন সাড়া না দেয়ায় বিষয়টি দীর্ঘদিনেও সমাধানে আসেনি। বরং স্থানীয় মোজাম্মেল ডাক্তার এবং মাসুদ উক্ত প্রবাসী আবুল হোসেনের পরিবাদের সদস্যদের প্রতিনিয়ত অত্যাচার ও নির্যাতন চালিয়ে আসছে বলে অভিযোগ রয়েছে।


নির্যাতনের শিকার বিউটি আক্তার জানান, মাসুদ ও মোজাম্মেল ডাক্তার বহিরাগত এবং স্থানীয় জাকির, শহিদ, আবু সাঈদকে নিয়ে প্রায়ই তার বাড়িতে এসে অকথ্য ভাষায় গালাগালসহ প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে। বাড়ির সামনে টিনের বেড়া, গাছপালা ও মাঠি কেটে নেয়ার সময় বাধা দেয়ায় আমার বৃদ্ধ মাকে মারধরসহ আমাকেও মারধর করে। শুধু তাই নয় মাসুদ আমাকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে আমি তা প্রত্যাখান করায় মাসুদ শত্রুতাবশত সে নিজে ও বহিরাগত লোকজন নিয়ে আব্দুল মজিদের দেয়া ১০ ফুট রাস্তা দখলের পাশাপাশি আমাদের বাড়ির জমিটি দখলের চেষ্টা করছে। বিনা অপরাধে আমাকে ও মাকে মারধরের ঘটনায় আমরা আইনের আশ্রয় নিয়েছি। আমরা এর বিচার চাই। এছাড়াও আমাদের পক্ষে যাঁরা সত্য কথা বলে তাদেরকেও তারা হুমকি দিয়ে আসছে।
এব্যাপারে জানতে মাসুদের মুঠো ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করে তাকে পাওয়া যায়নি এবং মোজাম্মেল ডাক্তারের মুঠো ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।
##