ফরিদপুরের আ.লীগের দলীয় কোন্দলের জের ধরে যুবলীগ নেতার বাড়ীতে হামলা, ভাংচুর-লুটপাট

প্রকাশিত

মাহবুবহোসেন পিয়াল,ফরিদপুর-
ফরিদপুরের সালথা উপজেলার সালথা বাজার এলাকায় আওয়ামীলীগের দলীয় কোন্দলের জের ধরে থানা মাগিয়ে ৫ রাউন্ড টিয়ারসেল ও ২ রাউন্ড শর্টগানের গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।
স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, দীর্ঘদিন ধরে যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বাদলের সাথে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাব্বির চৌধুরীর বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধের জের ধরে এর আগেও কয়েকদফা হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। সোমবার রাত ১০টার দিকে সাব্বির চৌধুরীর কয়েকশ সমর্থক দেশীয় অস্ত্রনিয়ে বাদলের সালথা বাজারস্থ বাড়ীতে হামলা চালায়। এসময় তারা বাদল ও তার ভাইদের তিনটি বাড়ী ভাংচুর করে। একপর্যায়ে বাড়ীর মালামাল ভাংচুরের পাশাপাশি টিভি, ফ্রিজ, স্বর্নালংকার, নগদ টাকা, ধান, পাট, পিয়াজসহ ২০লক্ষ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। হামলাকারীরা একটি ঘরের বিল্ডিংয়ের একাংশ ভেঙ্গে ফেলে। তার ঘরে থাকা সংসদ উপনেতার ছবিও ভাংচুর করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি উত্তেজনাকর থাকায় সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে। যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বাদল হোসেন জানান, সাব্বির চৌধুরীর নেতৃত্বে তার বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও ব্যাপক লুটপাট চালানো হয়। তিনি বলেন, হামলাকারীরা তার বাড়ীতে থাকা ধান, পাট, পিয়াজসহ ২০ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে গেছে।
সালথা থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এ ঘটনায় এখনো কোন মামলা হয়নি।