ফরিদপুরের শীর্ষ সন্ত্রাসী ভাগনা জুয়েলসহ তিন জন আটক, অস্ত্র-গুলি উদ্ধার

প্রকাশিত

মাহবুব হোসেন পিয়াল- ফরিদপুর
ফরিদপুর শহরের ব্রাহ্মনকান্দা হতে অস্ত্র, হত্যা ও মাদক ব্যবসাসহ ৭ মামলার আসামী আরাফাত হোসেন জুয়েল ওরফে ভাগনা জুয়েলকে দুটি পিস্তল ও গুলিসহ আটক করেছে র‌্যাব। এ সময় ফারজানা আক্তার ও আরিফুল ইসলাম নামের তার দুই সহযোগীকেও আটক করা হয়।
ফরিদপুর ক্যাম্প এর কোম্পানী অধিনায়ক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ রইছ উদ্দিন জানান, আজ সকালে শহরের ব্রাহ্মনকান্দা গ্রামে জুয়েলের বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করে ফরিদপুরের শীর্ষ সন্ত্রাসী অর্ধ ডজন অস্ত্র, হত্যা ও মাদক মামলার আসামী জুয়েল ও তার সহযোগী ফারজানা আক্তার, মোঃ আরিফুল ইসলামকে আটক করা হয়। এ সময় আটককৃতদের নিকট হতে একটি বিদেশী পিস্তল, একটি ওয়ান শুটার গান, একটি ম্যাগাজিন, নয় রাউন্ড তাজা গুলি, একটি চাপাতি, দুটি ধারালো চাকু, ১১৫ পিস ইয়াবা, একটি পাসপোর্ট উদ্ধার করা হয়। আটক আরাফাত হোসেন জুয়েল দীর্ঘ দিন ফরিদপুর শহর এলাকায় সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালিয়ে আসছিল।
উল্লেখ্য মোঃ আরাফাত হোসেন জুয়েল ইতিপূর্বে ঢাকা জেলার সাভারের একটি হাউজিং প্রকল্প এলাকা হতে রাজধানী ঢাকার অন্যতম ত্রাস ফাঁসির দন্ড প্রাপ্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী নোমান ইবনে বাশার টিবিএস বাবুর সাথে অস্ত্র-গুলিসহ র‌্যাব কর্তৃক আটক হয়। বর্তমানের জেল থেকে বের হয়ে আবার শহরে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে। জুয়েল এর বিরুদ্ধে জেলার কোতয়ালী থানা এবং ঢাকার সাভার থানায় হত্যা, অস্ত্র মামলাসহ সর্বমোট ৬টি মামলা বিচারাধীন রয়েছে। এছাড়া ফারজানা আক্তার এর বিরুদ্ধে ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী থানা এবং ঢাকা জেলার সাভার থানায় মোট ৪টি মাদক মামলা বিচারাধীন রয়েছে।