ফুলপুরে বন্যার কারণে কৃষকদের বীজতলা সংকট নিরসনে তৈরী হচ্ছে ভাসমান বীজতলা

প্রকাশিত

ফুলপুর প্রতিনিধিঃ

ময়মসিংহের ফুলপুর উপজেলায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের বীজতলা সংকট নিরসনে ভাসমান বীজতলা তৈরীর কার্যক্রম হাতে নিয়েছে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর।বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের এই ভাসমান বীজতলা তৈরী করে দিচ্ছে হেলডস্ ওপেন স্কাউট গ্রুপের স্কাউট সদস্যরা।

মহামারি করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় কৃষকরা দ্বিতীয় দফায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দীর্ঘস্থায়ী বন্যায়। বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে বীজতলা ও বীজতলা তৈরীর জায়গা। পানি নামার কোন লক্ষণ নেই। এমতাবস্থায় কৃষকদের চোখেঁ মুখে দেখা দেয় হতাশার ছাপ। বীজতলা সংকটে হতাশ হয়ে পড়ে কৃষকরা। ফলে আমনের বীজতলা সংকটের কারণে লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে শঙ্কা দেখা দেয়। ঠিক সেই সময় উপজেলা কৃষি বিভাগ বন্যাদূর্গত কৃষকদের বীজতলা সংকট নিরসনে  প্রায় তিন একর জায়গায় নাবি আমন জাতের বিআর-২২ ধানের ভাসমান বীজতলা তৈরী কর্মসূচী হাতে নেয়। উপজেলা কৃষি বিভাগের কর্মসূচীর কৃষকদের এই ভাসমান বীজতলা তৈরী করে দিচ্ছে ফুলপুরের স্কাউট সদস্যরা।

 জানা যায়, ভাসমান বীজতলায় সুস্থ চারা উৎপাদন হয় এবং চারাগুলোও কোন আঘাত পায় না। জমিতে রোপনের পর শতভাগ চারা জীবিত থাকে এবং অল্প সময়ে বেড়ে উঠে। চারা সবল থাকায় ধানের ফলনও ভালো হয়। স্থানীয় পদ্ধতির চেয়ে এ পদ্ধতিতে বীজ কম লাগে। ফলে খরচও কম হয়।

এই বিষয়ে  হেলডস্ ওপেন স্কাউট গ্রুপের সম্পাদক তাসফিক হক নাফিও বলেন, “মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অাহবানে সারা দিয়ে জমির সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করতে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় ভাসমান বীজতলা তৈরীর কাজ করে যাচ্ছি আমরা। আশা করছি ফুলপুরের কৃষকদের আবাদি জমি পতিত থাকবে না।”

ফুলপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মোঃ আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের বীজতলা সংকট নিরসনে কৃষি বিভাগ ভাসমান বীজতলা তৈরীর কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। কৃষি বিভাগের সার্বিক সহযোগীতায় হেলডস্ ওপেন স্কাউট গ্রুপের স্কাউট সদস্যরা কৃষকদের এই ভাসমান বীজতলা তৈরী করে দিচ্ছে। বন্যার পানিতে কলাগাছের ভেলা তৈরী করে তাতে কচুরিপানা ও তার উপর দেড় থেকে দুই ইঞ্চি মাটি দিয়ে এই বীজতলা তৈরী করা হয়েছে। ২৫ দিন পর এই চারা জমিতে রোপন করা যাবে।কৃষকদের ভাসমান বীজতলার বিষয়ে যথাযথ পরামর্শ ও পরিচর্যার বিষয়ে দিক নির্দেশনা দেয়া হচ্ছে।

Be the first to write a comment.

Leave a Reply