ফ্রান্স নারীদের যৌন হয়রানি রুখতে আইন করেছে

প্রকাশিত
আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: নারীদের স্বাধীনভাবে চলাফেরা নিশ্চিত করা ও যৌন হয়রানি রুখতে আইন করেছে ফ্রান্স সরকার। এই আইনের আওতায় নারীদের নিয়ে কোনো রকম কুমন্তব্য করলেই দিতে হবে ৯০ ইউরো বা ৯ হাজার ৩১৪ টাকা জরিমানা নির্ধারণ করেছে প্যারিসের প্রশাসন।
আইনে বলা হয়েছে, প্রকাশ্যে যদি কেউ কোনোভাবে নারীদের সঙ্গে অপমানজনক ব্যবহার করে তাহলেই সেই ব্যক্তিকে অভিযুক্ত হিসেবে ধরে নেওয়া হবে। অভিযুক্ত ব্যক্তি সাধারণ মানুষও হতে পারে। হতে পারেন কোনো বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব। তবে যেই হন না কেন, শাস্তির বহর কিন্তু ব্যক্তি বিশেষে বদলাচ্ছে না। শাস্তি একটাই। নারীদের কোনোভাবে হেনস্তা করলেই দিতে হবে ৯০ ইউরো জরিমানা।
অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাস্থল থেকে অনেক অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে। তবে ওই পর্যন্তই। দিন দুয়েক জেলে খাটিয়ে ছাড়া পেয়ে গেছে সেই কীর্তিমান। বিষয়টি নিয়ে নগরবাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছিল। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে শেষ পর্যন্ত আসরে নামে প্রশাসনিক কর্তা ব্যক্তিরা। রাজনৈতিক নেতা ও পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে বৈঠকে বসা হয়। তারপরেই এই সিদ্ধান্তে নেয় ফ্রান্স সরকার।
যৌন আগ্রাসন রুখতে চালু হওয়া সরকারি পদক্ষেপে সমর্থন জানিয়েছে প্যারিসের প্রত্যেক রাজনৈতিক দল।
উল্লেখ্য, বেশ কিছুদিন ধরেই নারীদের যৌন হয়রানি সংক্রান্ত খবরে উত্তাল হয়েছিল প্যারিস। শহরের বিভিন্ন প্রান্তে একের পর এক অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটছিল। প্রকাশ্যে রাজপথেই নারীরা যৌন হেনস্থার শিকার হচ্ছিলেন। একাকি নারী দেখলেই আক্রমণ করছিল দুর্বৃত্তরা। পুলিশি সক্রিয়তা বাড়লেও হেনস্তার ঘটনা রুখে দেওয়া যায়নি।