বগুড়ায় সরকারি চাল সহ কৃষকলীগ নেতা আটক! ৫০ বস্তা চাল উদ্ধার

প্রকাশিত
মারুফ হাসান,বগুড়া-
করোনা ভাইরাস এর প্রভাবে যখন সারাদেশে জনজীবন স্থবির। নিম্ন আয়ের মানুষ গুলো যখন প্রহর গুনছে অভুক্ত অবস্থায়। ঠিক সেই মূহুর্তে করোনা কে পুজি করে গরিবের ত্রাণ আত্মসাতের কাজে ব্যস্ত কিছু বিবেকহীন স্বার্থনেশী মহল।
এরই ধারাবাহিকতায় বগুড়ার সোনাতলায় হতদরিদ্রদের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচীর অংশ হিসেবে সরকার কতৃক নির্ধাররিত ১০ টাকা কেজি দরের চাল কালোবাজারে কেনার অভিযোগে অত্র এলাকার কৃষক লীগ নেতা মিঠু মণ্ডল (৩৮) কে আটক করেছে সোনাতলা থানা পুলিশ।সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ৫০ বস্তা চাল কিনে নিজের হেফাজতে নেয়ার সময় আজ  (৯ এপ্রিল) বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা নাগাদ মধুপুর ইউনিয়ন এর হাঁসরাজ গ্রাম থেকে তাকে  আটক করা হয়।
এলাকা সূত্রে জানা যায়,মিঠু মণ্ডল সোনাতলা উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের দড়ি হাঁসরাজ গ্রামের মৃত অফিজ উদ্দিনের ছেলে এবং ৩নং ওয়ার্ড কৃষক লীগের সভাপতি।
জানা গেছে, বৃহস্পতিবার উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের তেকানী চুকাই নগর বাজারে সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় হতদরিদ্রদের মাঝে খোলাবাজারে ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি করা হয়। আটককৃত মিঠু মণ্ডল অত্র এলাকার ডিলার ঈশ্বর চন্দ্র ও সাবু মিয়ার সঙ্গে সমঝোতা করে ৫০ বস্তা চাল কিনে নেন। সন্ধ্যার পর সেই চাল পাচার করে নিজের হেফাজতে নেয়ার সময় জনগণ তাকে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেয়। সেখান থেকে মিঠু মণ্ডলকে আটক এবং ৫০ বস্তা চাল জব্দ করে পুলিশ।
সোনাতলা থানার পুলিশ পরিদর্শক জাহিদ হোসেন জানান, আটককৃত মিঠু মণ্ডলের কাছ থেকে ৫০ বস্তা চাল ও কয়েকজন ভিজিডি সুবিধাভোগীর ভুয়া কার্ডও জব্দ করা হয়েছে। আরও জানান, সাব ইন্সপেক্টর রহিম উদ্দিন বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।