বঙ্গবন্ধুর অবমাননা সহ্য করা হবে না : ডা. কামরুল হাসান খান

প্রকাশিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: ‘পৃথিবীর কোথাও সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, বাংলাদেশের জাতির পিতা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কোনো ধরনের অবমাননা সহ্য করা হবে না। যারাই এ ধরনের ঘৃণিত অপকর্মে লিপ্ত হবে তাদের বিরুদ্ধে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।’

শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে এসব কথা বলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের মহাসচিব অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান।

লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনে হামলা ও জাতির পিতার প্রতিকৃতি অবমাননার প্রতিবাদে এবং দোষী ও পরিকল্পনাকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

কামরুল হাসান খান বলেন, আগামী ৭ দিনের মধ্যে দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করা না হলে বাংলাদেশে ব্রিটিশ হাকমিশন ঘেরাও করা হবে।

১৯৭১ সালের মতো গর্জে উঠে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে জাতির পিতার প্রকৃতি অবমাননাকারীদের রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান কামরুল হাসান খান।

লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনে হামলা ও জাতির পিতার প্রতিকৃতি অবমাননাকে ঘৃণিত কর্মকাণ্ড হিসেবে উল্লেখ করে দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করার জোর দাবি জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।

অন্য বক্তারা জাতির পিতার প্রতিকৃতিকে অবমাননা রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল বলে উল্লেখ করেন।

মানববন্ধনে পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা সাংবাদিক ইকবাল সোবহান চৌধুরী, অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আকতারুজ্জামান, অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট মাহবুবে আলম, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ সিকদার, বিএমএর সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, বিএফইউজের সভাপতি ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট মেম্বার সাংবাদিক মঞ্জুরুল ইসলাম বুলবুল, কেআইবির সভাপতি কৃষিবিদ এ এম এম সালেহ, আইইবির সভাপতি প্রকৌশলী আব্দুস সবুর, বিএফইউজের মহাসচিব সাংবাদিক ওমর ফারুক, কেআইবির মহাসচিব কৃষিবিদ খায়রুল আলম প্রিন্স, প্রকৌশলী অধ্যাপক হাবিবুর রহমান, স্বাচিপের মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এম এ আজিজ উপস্থিত ছিলেন।