বাণিজ্যমেলায় আশানুরূপ বিক্রি না হলেও খুশি বিক্রেতারা

প্রকাশিত

বাণিজ্য মেলার মধ্য সময়ে বেড়েছে ক্রেতা-দর্শনার্থী। স্টলে স্টলে ঘুরে-ফিরেই সময় কাটাচ্ছেন তারা। কেউ কেউ কিনলেও বেশিাভাগই কিনছেন না। এখনই নয়, আরো কিছুদিন পর কেনাকাটা শুরু করবে বলে জানান দর্শনার্থীরা। তবে আশানুরুপ বিক্রি না হলেও খুশি বিক্রেতারা। তারা বলছেন, এখন যে কেনাকাটা হচ্ছে তাতেই আমরা খুশি। মেলা মূলত পণ্যের প্রদর্শনী। ক্রেতা-দর্শনার্থীর কাছে পণ্যের পরিচিতই হলো মূল উদ্দেশ্য। তাদের পণ্য সম্পর্কে জানাতেই মেলায় থাকছে নানা আয়োজন।
সকাল থেকেই মেলায় দর্শনার্থীর উপস্থিতি বাড়তে থাকে। উপচেপড়া ভিড় না থাকলেও অন্য যেকোনো খোলার দিনের চেয়ে গতকাল দর্শনার্থী বেশি ছিলো। গতকাল মঙ্গলবার শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মতো। বঙ্গবন্ধু সম্মেলনকেন্দ্রে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে যোগ দিতে আসা অধিকাংশ শিক্ষার্থীকে এদিন মেলায় ঘুরতে দেখা গেছে। মাহবুব আলম নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, বঙ্গবন্ধু সম্মেলনকেন্দ্রে সমাবর্তনে যোগ দিতে এসেছি। পাশেই বাণিজ্য মেলা, একটু না এলে কেমন হয় ? তাই বন্ধুদের নিয়ে ঘুরতে আসা। কেনাকাটা করছেন কিনাÑ জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি এখনো কেনাকাটা করিনি। পছন্দ হলে অনেকেই কিনছে। আমিও দেখছি, পছন্দ হলে কিনবো। মেলা ঘুরে দেখা গেছে, ক্রেতাদের সবচেয়ে বেশি আগ্রহ গৃহস্থালিপণ্যে। প্লাস্টিকের তৈরি গৃহস্থালিপণ্যের পাশাপাশি রয়েছে প্রেসার কুকার, জুস মেকার, জুস ব্লেন্ডার, ওভেন, রাইস কুকারসহ নানা ধরনের তৈজসপত্র ও ইলেক্ট্রনিক পণ্য। এছাড়া ব্লেজার, ঘর সাজানোর বিভিন্ন উপকরণ, খাদ্যপণ্য ও শিশুদের খেলনা সামগ্রী রয়েছে ক্রেতাদের পছন্দের শীর্ষে।
যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে রান্নার কাজ সহজ ও সুন্দরভাবে পরিবেশনের জন্য বাণিজ্য মেলায় মানানসই সব গৃহস্থালি পণ্যের পসরা সাজিয়েছে দেশি-বিদেশি নানা প্রতিষ্ঠান। সৌখিন জিনিসপত্রের পাশাপাশি নিত্য ব্যবহারের তৈজসপত্র রয়েছে এসব প্রতিষ্ঠানের স্টলে। পণ্যভেদে রয়েছে বিশেষ অফার।
বনফুল কিষোয়ানের বিক্রেতা জয় সাহা বলেন, আশানুরুপ বিক্রি না হলেও খারাপ নয়। যা বিক্রি হচ্ছে তাতেই আমরা খুশি। দর্শনার্থী আসছে, দেখছে, এতেই আমরা বেশ খুশি। দর্শনার্থীরা স্টল ঘুরে দেখুক। কি কি পণ্য আছে তা জানুক। অনেক বেশি বিক্রি হবার দরকার নেই, দেখলেই হবে।
শেষ সময়ের প্রস্তুতি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, প্রতি বছর শেষ সময় বিক্রি বাড়ে। এবারো বাড়বে। তবে শেষ সময়ে আমাদের অফার কমছে। এখন যে অফার দিচ্ছি শেষ সময়ে তেমন অফার থাকছে না। তখন অনেকেই কিনতে আসবে। অফার কম-বেশি যাই হোক না কেন, আগতরা কিনতেই আসবে। তাই অফার কমবে বলে তিনি জানান।
মেলায় কথা হলো তহুরা সিদ্দিকী নামের এক দর্শনার্থীর সাথে। তিনি বলেন, আজ মেলায় এসেছি দেখতে। অনেক কিছুই কেনার পরিকল্পনা আছে, তবে তা আজ নয়। পরে আবার আসবো, তখন কিনবো।
মেলায় কিনতে এসেছেন মাহফুজ আহমেদ নামে এক দর্শনার্থী। তিনি বলেন, প্রতিদিন মেলায় আসার সময় হয় না। আজ এসেছি, অনেক কিছুই কেনার ইচ্ছা আছে। কেবল একটা ব্লেজার কিনলাম। আরো কেনাকাটার পরিকল্পনা আছে। দ্বিতীয়বার আসার সময় পাবো না, তাই আজ যা কেনার কিনবো।
মেলার পরিবেশ নিয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মেলার এবারের পরিবেশ বেশ ভালো। এমন পরিবেশ থাকলে দর্শনার্থী আরো বাড়বে বলে তিনি জানান