বানিয়াচংয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় সাংবাদিকসহ ৪ জন আহত

প্রকাশিত
হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : বানিয়াচংয়ে পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় সাংবাদিক সুজন মিয়াসহ পরিবারের ৪ জন আহত হয়েছেন। আহতদের বানিয়াচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার (২৭ এপ্রিল) ইফতারের পূর্বে খন্দকার মহল্লায়।
স্থানীয়রা জানান, উপজেলার ১নং ইউনিয়নের খন্দকার মহল্লার সাংবাদিক মো. সুজন মিয়ার ক্রয়সূত্রে দখলীয় বাড়িঘর দখল করতে মরিয়া হয়ে উঠে প্রতিবেশি মৃত মুক্তার হোসেন মিয়া ওরফে ঘটক মুক্তরের ছেলে মঈনুল হোসেন ও তার স্বজনরা। এ নিয়ে কিছুদিন আগে ঝগড়া হলে এলাকার পঞ্চায়েতে বিষযটি রফাদফা করে দেয়া হয়। কিন্তুু সামাজিক বিচার উপেক্ষা করে মঈনুলের ভাতিজা রুবেল মিয়া সাংবাদিক সুজন ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে। মঈনুল গংদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে সাংবাদিক সুজন দেওয়ান দিঘির পূর্বপাড়ে ভাড়া বাসায় স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে বসবাস শুরু করেন।
ঘটনার সময় সুজনের মা বোন ও ভাইদের ঘর থেকে তাড়িয়ে দিতে একদল দাঙ্গাবাজ দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র সহকারে হামলা চালায়। খবর পেয়ে সাংবাদিক সুজন ঘটনাস্থলে পৌঁছেন। সুজনকে দেখে প্রতিপক্ষের লোকজন হামলার পরিমান আরো তীব্র করে দেয়। এতে সাংবাদিক সুজন, তার মা খাইরুননেছা, বোন কলেজ ছাত্রী তুলি আক্তার ও ভাই সুমন মিয়া গুরুতর আহত হন। এক পর্যায়ে হামলাকারীরা সুজন ও তার পরিবারের সদস্যদের একটি ঘরে জিম্মি করে রাখে। খবর পেয়ে বানিয়াচং থানার পুলিশ ও এলাকাবাসী উদ্ধার করে তাদেরকে আহতাবস্থায় বানিয়াচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করেন।
আহত সাংবাদিক মো. সুজন মিয়া জানান তিনি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।