বান্দরবানে ২৫ আগ্নেয়াস্ত্র ও ২ হাজার রাউন্ড গুলিসহ ৪ জন আটক

প্রকাশিত
বান্দরবান প্রতিনিধিঃ বান্দরবানের লামা উপজেলার দুর্গম এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২৫টি অগ্নেয়াস্ত্র ও ২ হাজার ৩৭ রাউন্ড গুলিসহ ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারি পরিচালক আমিরুল্লাহ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। উদ্ধার করা অস্ত্রের মধ্যে ১৪টি এসবিবিএল ও ১১টি ওয়ানশুটার গান রয়েছে তিনি জানান।
বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে (১৫ ফেব্রুয়ারি) ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের দুর্গম রোয়াজা পাড়া এলাকায় র‌্যাব এই অভিযান চালায়।
র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্প কমান্ডার মেজর রুহুল আমিন এবং বান্দরবান ফাঁসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন মজুমদার এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
অভিযানের সময় আটককৃতরা হলেন- ছাইলুং মারমা (৩৫), সুইচামং মারমা (৩৪), মেফা মারমা (৪১) ও ঐক্য মারমা (৪০)। তারা সবাই একই ইউনিয়নের বাসিন্দা।
ফাঁসিয়াখালী ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন মজুমদার জানান, গত রাতে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের রোয়াজা পাড়া এলাকায় কক্সবাজারের র‌্যাব-৭ এর একটি টিম অভিযান চালায়। এসময় এ এলাকা থেকে ২৫টি দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্রসহ ৪ জনকে আটক করে। তবে অভিযানের পরপরই উদ্ধারকৃত অস্ত্রসহ আটককৃতদের নিয়ে কক্সবাজার চলে যায় র‌্যাবের দলটি।
স্থানীয়রা জানান, এখানে দীর্ঘদিন ধরেই ডাকাতি করছিল একদল সন্ত্রাসীরা। তবে বান্দরবান-কক্সবাজারের সীমান্তবর্তী এই এলাকাটি দুর্গম হওয়ায় পুলিশও তাদের কিছু করতে পারেনি এতদিন। পুলিশ ধরতে আসলেই তারা কক্সবাজার সীমান্তে চলে যেত আবার পুলিশ চলে গেলে তারা বান্দরবান সীমানায় চলে আসত।
এব্যাপারে র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্প কমান্ডার মেজর রুহুল আমিন অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘আমরা এখনই বিস্তারিত বলতে পারবো না। শিগগিরই সব তথ্য জানানো হবে।’ এ বিষয়ে আজ কক্সবাজারে সংবাদ সম্মেলন হবে বলেও জানান তিনি।