ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কৃষকের ধান কেটে দিলো জেলা ছাত্রলীগ

প্রকাশিত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়নের পঞ্চকুটি গ্রামের কৃষক লিটন মিয়া ধান কাটতে না পরায় ক্ষেতের পাকা ধান নষ্ট হয়ে যাচ্ছিল।

জনপ্রতি ৫০০ টাকা পারিশ্রমিক দিয়ে ৮০ শতাংশ জমির পাকা ধান শ্রমিক দিয়ে কাটানো লিটন মিয়ার পক্ষে সম্ভব ছিল না, তার মধ্যে করোনার প্রাদুর্ভাবে লোকও পাওয়া যায় না। এই পরিস্থিতিতে যখন দিশেহারা, তখন লিটন মিয়ার পাশে এসে দাঁড়ালেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল ও সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত শোভন ও তাদের সঙ্গে থাকা ছাত্রলীগ কর্মীরা।

শুত্রুবার কৃষক লিটন মিয়ার ৮০ শতাংশ পাকা ধান কেটে ঘরে তুলে দিয়েছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। তারা সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত কাজ করেন।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল বলেন, ‘কৃষকদের ধান কাটায় সহযোগিতা করতে নির্দেশ দিয়েছেন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। তারপর থেকেই জেলা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা আন্তরিকতার সঙ্গে অসহায় কৃষকদের দিকে এগিয়ে এসেছেন।’

কৃষক লিটন মিয়া বলেন, ‘ধান কাটা নিয়ে মহাবিপদে ছিলাম। ছাত্রলীগের কর্মীরা এসে আমাকে মহা বিপদ থেকে বাঁচাল। আমি এখন অনেক খুশি। আমি জেলা ছাত্রলীগের জন্য দোয়া করি।