ভূতুরে বিল !গাজীপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির-১ বিরুদ্ধে উকিল নোটিশ

প্রকাশিত

অনলাইন ডেস্ক- করোনা মহামারী গোটা বিশ্ব যখন অর্থনৈতিকভাবে স্থবির হয়ে পরেছে তখনি গাজীপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর গ্রাহক মোঃ আক্তারুজ্জামান পিতাঃ মৃতঃ আব্দুল হালিম আকন্দ সাং- যোগিতলা, গাজিপুর সিটি কর্পোরেশন।গাজীপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর গ্রাহক হিসাব নং ৬৬৪ বহি নং ২১৪৫ মিটারে ১০ মাসের ১৪৬১৩/= টাকা বকেয়া থাকার কারণে ১৬-০৬-২০১৯ তারিখে অত্র মিটার টি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয় । উক্ত বকেয়া ১০ মাসের বকেয়া বিল ১৪৬১৩/= টাকা তিন কিস্তিতে পরিশোধ করিলে বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষের ২১-১২-২০২০ তারিখে পূনরায় বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়। কিছুদিন পর কর্তৃপক্ষ পুনরায় ১৯-০৬-২০১৯ হইতে ২১-১২-২০২০ ইং অবিচ্ছিন্ন বা ১৮ মাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকার পরও ১৮ মাসের পূনরায় বিদ্যুৎ বিল ৬৬০০৫/= টাকা (ছেষট্টি হাজার পাঁচ) টাকা দেখানো হয় যা সম্পূর্ণ অবান্তর অপ্রাসঙ্গিক ভূতের বিল। যেহেতু গ্রাহক কোন বিদ্যুৎ ব্যবহার করেনি সেহেতু কেন গ্রাহক ১৮ মাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন বিল ৬৬০০৫ /= টাকা পরিশোধ করিবে। এই নিয়ে বিদ্যুৎ জ্বালানী মন্ত্রণালয়ের সচিব, পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে জি এম সাথে যোগাযোগ করিলে কোন প্রতিকার না পাইয়া ১৪-০৩-২০২১ তারিখে গাজীপুর জজকোর্ট এড. মোহাম্মদ সারোয়ার-ই- কায়নাত এর মারফত উকিল নোটিশ পাঠানো হয়। উকিল নোটিশে বলা হয় ১৬-০৬-২০২১ তারিখে ভূতুরে বা অন্যাইভাবে মিথ্যা বিল এর সুষ্ঠ ব্যবস্থা করার জন্য আবেদন দিয়েও কোন প্রতিকার না পাওয়া, কেন গাজীপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির -১ বিরুদ্ধে দেওয়ানী ফৌজদারি মামলা হইবে না। তা আগামী ১৫ (পনের) দিনের মধ্যে নোটিশের জবাব দেওয়া অনুরোধ জানায়। উকিল নোটিশে আরো উল্লেখ ছিলো আবেদন সমুহ নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত কোন অবস্থায় বর্তমান সংযোগ বিচ্ছিন্ন না করা জন্য। কিন্তু উকিল নোটিশ করা কারনে পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে লোক জন গ্রাহকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি ধামকী দিচ্ছে। এবং বলছে মিটার খোলে নিবে বা সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিবে।