ভোলায় অ-সীমিত যাত্রী নিয়ে লঞ্চ চলাচল শুরু !

প্রকাশিত

ভোলা প্রতিনিধি:

প্রায় দুই মাস পর কিছু স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার শর্তে চালু হয়েছে ভোলার সাথে রাজধানীর লঞ্চ চলাচল। এতে গন্তব্যে যেতে পারার আনন্দ বিরাজ করছে যাত্রীদের মধ্যে। তবে অধিকাংশ যাত্রী সতর্কতা অবলম্বন না করায় করোনা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কাও করছেন কেউ কেউ। অনেক যাত্রীই মানছেন না কোন স্বাস্থ্যবিধি। অপরদিকে অতিরিক্ত যাত্রীর চাপে নির্দিষ্ট সময়ের আগেই ঘাট ছাড়ছে লঞ্চ। ফলে বিপাকে পড়েছেন আগে থেকে টিকিট কেটে রাখা অসংখ্য যাত্রী। তাছাড়া যাত্রীদেরকে জিম্মি করে অতিরিক্ত টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগও করেছেন কেউ কেউ।

যাত্রীরা অভিযোগ করেন, সকাল সাড়ে ৮টায় ভোলার ইলিশা ঘাট থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়ার কথা এ্যাডভ্যাঞ্চার কোম্পানির একটি যাত্রীবাহী লঞ্চ। কিন্তু ৭টা ২০ মিনিটেই অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে লঞ্চটি ঘাট ছেড়ে যায়। ফলে গতকাল কিংবা তারও আগে যারা ওই লঞ্চের টিকিট কিনেছিলেন তারা ঘাটে এসে বিপাকে পড়েন। এদিকে যানবাহনের তুলনায় যাত্রীর সংখ্যা অনেক বেশি হওয়ায় স্থানীয় একটি অসাধু চক্র যাত্রীদের জিম্মি করে হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা। তাছাড়া সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাত্রীদেরকে ছোট ছোট ট্রলারে উত্তাল মেঘনা পারাপার করা হচ্ছে। আদায় করা হচ্ছে কয়েকগুণ বেশি ভাড়া। এসব বিষয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ দাবি করছেন সাধারণ যাত্রীরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, যাত্রীদের মধ্যে করোনা প্রতিরোধে বিশেষ কোন সতর্কতা অবলম্বন করতে দেখা যায়নি। অনেক যাত্রীই ছিলেন মাস্ক ছাড়া। আবার কেউ কেউ মাস্ক পড়লেও তা ছিল থুতনির নিচে। অপর দিকে লঞ্চ কর্তৃপক্ষকেও কোন সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে দেখা যায়নি।

তবে বিআইডব্লিউটিএ’র ভোলা নদী বন্দরের সহকারী পরিচালক কামরুজ্জামান জানিয়েছেন, লঞ্চগুলোকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে যাত্রী পরিবহন করতে কঠোরভাবে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তারপরও যদি কোন লঞ্চ তা না মানে তা হলে তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।