মহেশখালীর পাহাড়ে অবৈধ অস্ত্র তৈরির কারখানায় অভিযান

প্রকাশিত

কক্সবাজার প্রতিনিধি : কক্সবাজারের মহেশখালীর পাহাড়ি এলাকায় অবৈধ অস্ত্র তৈরির কারখানার সন্ধান পেয়েছে র‌্যাব। কারখানা থেকে বিপুল সংখ্যক অস্ত্রসহ দুই ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। এখনও অভিযান চলছে।

শনিবার (২১ জুলাই) রাত ২টার পর অভিযানের নেতৃত্ব দেওয়া র‌্যাবের একজন কর্মকর্তা জানান, এখনও অভিযান চলছে। অভিযানে বেশ সাফল্য রয়েছে। মূল অভিযান শেষ হওয়ার পর গণমাধ্যমকে বিস্তারিত জানানো হবে।

এর আগে র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল- রাতে মহেশখালীর পাহাড়ে চালানো র‌্যাবের অভিযানে অবৈধ বন্দুক তৈরির একটি বড় কারখানার সন্ধান পাওয়া গেছে। অভিযানে তারা ২ ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে। উদ্ধার হয়েছে বিপুল সংখ্যক অস্ত্র।

বাহির থেকে দেখা অভিযান পরিস্থিতির বিবরণ দিয়ে কালারমারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ জানান, রাত ১১ টার কিছু সময় পর থেকে তারা কালারমারছড়া বাজার এলাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক সাজোয়া যান দেখা গেছে। অভিযানে অংশ নেওয়া আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও বিপুল সংখ্যায় ছিল। মূলত আশপাশের পাহাড়েই এই অভিযান চালানো হচ্ছে। বিস্ফোরণের মতো শব্দও শুনতে পেয়েছেন তারা।

শুরুর দিকে কালারমারছড়া বাজারে উপস্থিত একাধিক ব্যক্তি জানান, প্রথমদিকে তাবলীগ জামায়াতের সদস্য হিসেবে র‌্যাবের একটি ইউনিট এলাকায় আসেন। অভিযান শুরুর পর দু’দফায় র‌্যাবের আরও দুটি বড় দলকে অভিযানস্থলে আসতে দেখেছেন তারা।

চট্টগ্রামস্থ র‌্যাব -৭ ও র‌্যাবের কক্সবাজার ক্যাম্পের নেতৃত্বে এই অভিযান চলছে বলে জানা গেছে। এ অভিযানকে ঘিরে দ্বীপজুড়ে বেশ চাঞ্চল্যতার সৃষ্টি হয়েছে।