মহড়ার ফাঁকেই হচ্ছে ছবির শুটিং

প্রকাশিত

পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকীকে তাঁর নতুন ছবি ‘শনিবার বিকেল’ নিয়ে যখনই প্রশ্ন করা হয়, তিনি বলেছেন, ‘মহড়া হচ্ছে।’ পরে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মহড়ার ফাঁকেই ছবির শুটিং করছেন তিনি।

‘শনিবার বিকেল’আজ সোমবার সকালে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী জানালেন, মোট ১৭ দিন মহড়া করেছেন তাঁরা। এরই মধ্যে ‘শনিবার বিকেল’ ছবির মূল শুটিং শেষ হয়েছে। কিছু কাজ বাকি আছে, এখন সেগুলোর কাজ হচ্ছে। তবে পুরো শুটিং এ সপ্তাহেই শেষ হবে।

‘শনিবার বিকেল’‘শনিবার বিকেল’ ছবিতে বাংলাদেশসহ ১২টি দেশের শিল্পী ও কলাকুশলী কাজ করছেন। অনেকেই কাজ করছেন বিনা পারিশ্রমিকে, কেউ কেউ পারিশ্রমিকের বদলে নামমাত্র হাতখরচ নিচ্ছেন। বড় আয়োজনে হচ্ছে পুরো কাজ। মোস্তফা সরয়ার ফারুকী বললেন, ‘দর্শক যখন দেখবেন, তখন তার কিছুই টের পাবেন না। সিনেমার আয়োজন পর্দার আড়ালেই থেকে যাবে, পর্দায় থাকবে শুধু আবেগ।’

‘শনিবার বিকেল’গতকাল রোববার রাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী লিখেছেন, ‘আমার একটা স্বপ্ন ছিল, যা আমি দেখেছিলাম অনেক মাস আগে। এরপর সেই স্বপ্নে আমার সাথি হলেন আজিজ ঝাম্বাকিয়েভ (কাজাখস্তান), আবদুল আজিজ, আন্না কাচকো (জার্মানি) আর আমার দলের লোকজনসহ ১২ দেশের শিল্পী, কলাকুশলী ও কর্মীরা। আমরা জানতাম, এবারের পথচলা মোটেও সহজ হবে না, কারণ আমার এবারের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হবে বিশেষ উপায়ে। অবশেষে আজ আমরা “স্যাটারডে আফটারনুন” বা “শনিবার বিকেল” ছবির মূল শুটিং শেষ করেছি।’

‘শনিবার বিকেল’প্রথম আলোকে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী বললেন, ‘দর্শক জানেন, প্রতি ছবিতেই আমি নিজেকে বদলাই। এবারও তেমনটাই দেখতে পাবেন। “শনিবার বিকেল” ছবির গল্প রাজনৈতিক সাসপেন্স থ্রিলার ধাঁচের। গল্পের মধ্যে শ্বাসরুদ্ধকর ব্যাপার আছে, আর শিল্পী ও কলাকুশলীরা শ্বাসরুদ্ধকর পরিবেশেই কাজটি করছেন। সবাই মিলে আমরা অমানুষিক পরিশ্রম করছি।’

‘শনিবার বিকেল’বাংলাদেশ-ভারত-জার্মান যৌথ প্রযোজনায় তৈরি হচ্ছে ‘শনিবার বিকেল’ ছবিটি। বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়া আর ভারতের কলকাতার শ্যাম সুন্দর দের পাশাপাশি ছবির প্রযোজনার সঙ্গে যুক্ত আছে ছবিয়াল। বাংলা ও ইংরেজি দুই ভাষায় মুক্তি পাবে ছবিটি। অভিনয় করছেন নুসরাত ইমরোজ তিশা, জাহিদ হাসান, ইরেশ যাকের, ফিলিস্তিনি অভিনেতা ইয়াদ হুরানি, ভারতের পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় প্রমুখ।