মাদারীপুরে বাবার বাবার বকুনিতে ছেলের আত্মহত্যা 

প্রকাশিত
সাব্বির হোসাইন আজিজ, মাদারীপুর-
মাদারীপুর সদর উপজেলার মস্তফাপুর এলাকায় রোববার সকাল ১০ টার  দিকে শামীম হাওলাদার (২৪) নামে এক সৌদিআরব প্রবাসী বাবা সাথে রাখ করে গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করেছে।
পারিবারিক ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, মস্তফাপুর এলাকার আলম হাওলাদার ধার দেনা করে ছেলে শামীম হাওলাদারকে আড়াই বছর পূর্বে সৌদিআরব পাঠায়। সেখানে দেড় বছরের বেশি সময় থাকার পর কাগজপত্রে সমস্যা দেখা দেয়ায় বাড়ীতে চলে আসে। ধার দেনা পরিশোধ না হওয়ায় বাড়ী আশার পর শামীম অটো চালানো শুরু করে এবং মাঝে মধ্যে অটো চালানো বন্ধ রাখতো। এতে ধারদেনার টাকার চাপ বাড়তে থাকায় এরই জেরে সকালে তার বাবা আলম হাওলাদার বাড়ির কাজ-কর্ম নিয়ে শামীম কে বকুনি দেয়। তখন ছেলের উপর অভিমান করে সামীমের বাবা মা বাড়ি থেকে অন্যত্র চলে যায়। বাড়িতে কেউ না থাকার এই সুযোগে বসত ঘরের দরজা বন্ধ করে ঘরের আড়ার সাথে ওড়না পেচিয়ে গলায় ফাঁস দেয় শামীম। পরে বাড়ির ভাড়াটিয়া জানালা দিয়ে দেখতে পায় শামীম ঘরের আড়ার সাথে জুলতেছে। তখন ভাড়াটিয়াদের ডাক চিৎকারে আশে পাশের লোকজন এসে অচেতন অবস্থায় শামীমকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।
শামীমের চাচা আজিজুল হাওলাদার জানান, আমি মহিলাদের চিৎকার শুনে কাছে গিয়ে দেখি আড়ার সাথে শামিম জুলছে। এরপর তারাহুড়া করে নামিয়ে হাসপাতালে নিয়ে আসলে ডাক্তার তাকে মৃত্যু ঘোষনা করে।
মাদারীপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( সদর সার্কেল ) মোহাম্মদ বদরুল আলম মোল্লা বলেন, ঘটনাস্থল পুলিশ পরিদর্শন করেছে। প্রাথমিকভাবে লাশের অবস্থা দেখে বোঝা গেছে গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করেছে।