মাদারীপুরে বৃদ্ধাকে কুপিয়ে জখমের মামলা নেয়নি পুলিশ

প্রকাশিত

মাদারীপুর প্রতিনিধি-

মাদারীপুরের ডাসারে এক বৃদ্ধা ও তার মেয়েকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় ডাসার থানায় মামলা পুলিশ মামলা নেয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে আহতের পরিবারের দাবি মামলা করতে গেলে টাকা নিয়ে পরে অর্ধেক টাকা ফেরত দিয়ে মামলা নেয়নি পুলিশ।

স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার বিকালে ডাসার থানার বালিগ্রাম ইউনিয়নের আটিপাড়া গ্রামের ওয়াজেদ ঢালী (৬০) ও তার স্কুল পড়ুয়া মেয়ে লামিয়াকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর জখম করা হয়। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাদের মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে ওয়াজেদ ঢালীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় শনিবার রাতে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এই ঘটনায় গুরুতর আহত ওয়াজেদ ঢালীর পরিবারের লোকজন ডাসার থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মোটা অংকের টাকা দাবি করে। টাকা দিতে না পাড়ায় মামলা নেয়নি বলে অভিযোগ।

আহতর মেয়ে সনিয়া আক্তার বলেন, আমার বাবাকে আব্দুর রহমান ও তার ভাইয়েরা হামলা চালিয়ে  কুপিয়ে জখম করেছে। আমরা গরীব মানুষ। আমাদের কাছে ডাক্তার দেখানোর টাকাও নেই। আমরা মামলা করার টাকা দিবো কোথা থেকে? পুলিশকে টাকা দিতে না পারার কারণে পুলিশ আমাদের মামলা নেয়নি।

আহতের আত্মীয় সোহাগ হোসেন বলেন, আমি মামলা দিতে গেলে এক দারোগা আমার কাছ থেকে প্রথমে দশহাজার টাকা নেয়। পরে মামলা না নিয়ে আমাদের পাঁচহাজার টাকা ফেরত দেয় এবং উল্টো আমাদের বিরুদ্ধে মামলা করার ভয় দেখায়।

বালিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আফজাল হোসেন বলেন, হামলা হওয়ার আশঙ্কাটি আহতের পরিবার পুলিশকে জানিয়েছিল। পুলিশ তৎক্ষনাত ঘটনাস্থলে আসলে এই ঘটনাটি ঘটত না। পুলিশ তখন ফোন করে আমাকে মিমাংশা করে দিতে বলেছে। আমার বাড়ি অনেক দূরে। আমি আসার আগে ওই বৃদ্ধাকে কুপিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

এ ব্যাপারে ডাসার থানার ওসি গোলাম কিবরিয়া বলেন, বাদীপক্ষের অভিযোগে একজন সরকারী চাকুরীজীবি থাকায় তার নাম বাদ দিয়ে মামলা দিতে বলেছি। টাকা নেওয়ার বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেন।