মাশরাফি ভাবতে বললেন সাব্বির-নাসিরকে

প্রকাশিত
খেলাধুলা ডেস্ক: আজ ত্রিদেশীয় সিরিজে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশ দলের টপ অর্ডারের ব্যর্থতার পর মিডল অর্ডারের ব্যর্থতাও ভাবিয়ে তুলছে সবাইকে। তবে টপ অর্ডার আজ ব্যর্থ হলেও মিডল অর্ডারের ব্যর্থতা যেন নিত্য নৈমিত্তিক ঘটনা।
ফলে সমালোচকদের আঙুল উঠতে শুরু করেছে সাব্বির ও নাসিরের দিকে। কেন তাঁরা রান পাচ্ছেন না! দলের নিয়মিত মুখ সাব্বির রহমান। অন্যদিকে স্কোয়াডে আসা-যাওয়ার মধ্যে আছেন নাসির হোসেন। একাদশে অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে জায়গা পেলেও তেমন সুবিধা করতে পারছেন না নাসির।
তাঁর শেষ অর্ধশতক দেখা গিয়েছিল ৫৭ মাস আগে! এরপর আর নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি এই অলরাউন্ডার। সাব্বির মাঝেমধ্যে রানের ঝলক দেখালেও নাসির হোসেনের ত্রিদেশীয় সিরিজে রান যথাক্রমে ০, ২, ৩! বোলার নাসিরকে নিয়ে অবশ্য কোনো প্রশ্ন নেই। কারণ এই সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচেই তিনি দারুণ বল করেছেন। কিন্তু ব্যাটসম্যান নাসিরকে যে অনেকদিন ধরেই খুঁজে পাওয়া যাছে না। কেন রান পাচ্ছেন না বাংলাদেশের নির্ভরশীল এই দুই ব্যাটসম্যান? চাপ সামলাতে পারছেন না নাকি অন্য কোনো কারণ?
অধিনায়ক মাশরাফি চাইছেন দলের নির্ভরশীল এই দুই ব্যাটসম্যান ফাইনালের আগে তাঁদের ব্যাটিং নৈপুণ্য নিয়ে চিন্তা করুক। মাশরাফি বলেছেন, ‘আমার মনে হয় ওরা নিজেরাও খারাপ ফিল করছে আমার থেকেও। আমি চাইব যে ফাইনালের আগে এটা নিয়ে তারা চিন্তা করুক!’
সাব্বির-নাসিরের ব্যাটিং ব্যর্থতা নিয়ে সামগ্রিকভাবে মাশরাফি বলেছেন, ‘হতে পারে মেন্টালি  চাপটা তারা নিতে পারছে না, আরেকটা হতে পারে টেম্পারমেন্ট। হয়তো বা তারা রানটাকে বেশি পছন্দ করে, সময় কাটানোর চেয়ে মনে করে রানটা কুইক আসলে তাড়াতাড়ি সেট হয়ে যেতে পারে। ফার্স্ট ম্যাচেও যদি দেখেন, তিন-চার উইকেট পড়ার পরও স্ট্রাইক রেট কিন্তু ১০০ থাকে। কাজেই ওই অভ্যাসটা আমাদের কম। এমনকি ওয়ানডে ম্যাচেও যে কখনো কখনো উইকেট পড়ে গেলে ছোট সময়ে জন্য উইকেটে সেট হয়ে রান করা, ওই অভ্যাসটা হয়তো বা ন্যাচারালি আমাদের ক্রিকেটে একটু কম আছে। এখানে একটা ঘাটতি থাকতে পারে।’