মিশরকে হারিয়ে রাশিয়ার টানা দ্বিতীয় জয়

প্রকাশিত

মিশরকে ৩-১ গোলে হারিয়ে বিশ্বকাপে টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নিয়েছে রাশিয়া। ১৯৬৬ বিশ্বকাপের পর প্রথম কোনো বিশ্বমঞ্চে এমন কীর্তি দেখালো দলটি। যদিও তখন ছিল সোভিয়েত ইউনিয়ন।

আর এই জয়ের ফলে শেষ ষোলো প্রায় নিশ্চিত করে রেখেছে স্বাগতিক রাশিয়া। আর আর টানা দ্বিতীয় হারে নকআউট পর্বে ওঠা ফারাওদের শেষ বললেই চলে। এসব সমীকরণ অবশ্য তখনই মিলবে যখন উরুগুয়ে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে সৌদি আরবের বিপক্ষে জিতবে। তবে সৌদি কোনো ভাবে জিতে গেলেও গোল ব্যবধান এতে ভূমিকা রাখবে।

ইনজুরির কারণে মিশরের হয়ে প্রথম ম্যাচ খেলতে না পারা মোহামেদ সালাহ এ ম্যাচে জেতাতে পারলেন না নিজ দলকে। যদিও পেনাল্টি থেকে একটি গোল করে তিনি ব্যবধান কমান।

এদিন গ্রুপ ‘এ’র এই ম্যাচে দু’দলই দ্বিতীয়বার বিশ্বকাপে মাঠে নামে। যেখানে স্বাগতিক রাশিয়া উদ্বোধনী ম্যাচে সৌদি আরবকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দুরন্ত সূচনা করেছিল। তবে উরুগুয়ের বিপক্ষে ১-০ গোলের হার দিয়ে শুরু হয়েছিল মিশরের।

আসরের ১৭তম ম্যাচে সেইন্ট পিতার্সবুর্গে গোলশূন্য অবস্থায় বিরতিতি যায় দু’দল।

তবে পুরো ম্যাচে বল দখলে পিছিয়ে থাকলেও দ্বিতীয়ার্ধে ১৫ মিনিটের ব্যবধানে মিশরের জালে ৩টি গোল দেয় রাশিয়া। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই আত্মঘাতী গোলে লিড নেয় দলটি। ৪৭ মিনিটে আলেক্সান্দর গোলোভিনের বাউন্সি শট পরিষ্কার করতে গিয়ে নিজেদের জালেই বল ঠেলে দেন মিশরের আহমেদ ফাতি। ১-০ গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা।

আক্রমণের ধার বাড়ানো রাশিয়া মিশরের রক্ষণ ভাঙতে বার বার চেষ্টা চালিয়ে যায়। পরে ৫৯ মিনিটে দেনিস চেরিশভের গোলে ২-০ গোলের লিড পায় রাশিয়া। বিশ্বকাপে এটি তার তৃতীয় গোল। ফলে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে সর্বোচ্চ ৩ গোল করে তালিকায় শীর্ষে উঠে গেলেন তিনি। তিন মিনিট পরে আর্তেম জিউবার গোলে ৩-০ গোলে এগিয়ে যায় রাশিয়া।

মোহামেদ সালাহ’র পেনাল্টি গোলে রাশিয়ার সঙ্গে ব্যবধান কমায় মিশর। ৭৩ মিনিটে ভিডিও অ্যাসিটেন্ট রেফারি (ভিএআর) প্রযুক্তি থেকে পাওয়া পেনাল্টি থেকে বিশ্বকাপে নিজের প্রথম গোল করতে কোনো ভুল করেননি এই