যশোর পলিটেকনিকে বহিরাগতদের সঙ্গে সংঘর্ষে ছাত্রলীগ নেতাসহ আহত ১০

প্রকাশিত

যশোর সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্রদের সঙ্গে বহিরাগতদের সংঘর্ষে কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতিসহ উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কলেজ ক্যাম্পাসে এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের মধ্যে ছাত্রলীগের পাঁচজনসহ সাতজনকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

আহতরা হলেন- কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি সাহেদ আলী পলাশ, শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ কর্মী মঞ্জুরুল ইসলাম মুক্ত, মাহাবুবুর রহমান জনি, মোস্তাফিজুর রহমান ও সুমন হোসেন এবং বহিরগত আবদুল্লাহ ও সাহেব আলী।

কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পারভেজ হাসান জানান, কলেজের নতুন শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিয়ে তিনি ক্যাম্পাসে ঘুরছিলেন। এ সময় এক মেয়েকে কলেজ ড্রেসহীন অবস্থায় দেখে তাকে কলেজের নিয়মকানুন মেনে চলার জন্য বলা হয়। পরে ওই মেয়েটি ক্যাম্পাস গেটে থাকা বহিরাগতদের কাছে ভুল তথ্য দেয়। এ ঘটনায় বহিরাগত কালা আরিফ, সাইমন, বক্কর, জুয়েল, রাহুল টিপু মিলে তাকে মারধর করে।

তিনি বলেন, এ ঘটনা ক্যাম্পাসে জানাজানি হলে কলেজছাত্ররা এক হয়ে কলেজ সভাপতি সাহেদ আলী পলাশের নেতৃত্বে বহিরাগত কালা আরিফসহ অন্যদের সঙ্গে মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

যশোরের উপশহর পুলিশ ফাঁড়ির এসআই ফারুক হোসেন বলেন, বহিরাগতদের হামলায় কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতিসহ কয়েকজন আহত হয়েছেন। জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।