যৌন কেলেঙ্কারি: সাক্ষীকে অক্সফাম কর্মী হুমকি দিয়েছিল

প্রকাশিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : হাইতিতে দাতব্য সংস্থা অক্সফামের কর্মীদের বিরুদ্ধে ২০১১ সালে যৌন কেলেঙ্কারির অভিযোগ তদন্তকালে এক  সাক্ষীকে শারীরিকভাবে নির্যাতনের হুমকি দিয়েছিল সংস্থার তিন কর্মী। ব্যাপক সমালোচনার মুখে সোমবার সংস্থাটি যৌন কেলেঙ্কারির ঘটনায় ২০১১ সালে যে অভ্যন্তরীণ তদন্ত করেছিল সোমবার তার কিছু অংশ প্রকাশ করেছে। ওই প্রতিবেদনেই সাক্ষীকে হুমকির বিষয়টি উল্লেখ করা হয়েছে।

জনসম্মুখে প্রকাশের জন্য ১১ পৃষ্ঠার ওই প্রতিবেদনে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের নাম কালো কালিতে ঢেকে দেওয়া হয়েছে। সোমবার মূল প্রতিবেদনটি অক্সফাম হাইতি সরকারের হাতে তুলে দিয়ে ক্ষমা প্রার্থণা করবে বলে সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

অক্সফামের ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১১ সালে হাইতিতে যৌন কেলেঙ্কারির ঘটনায় সাত কর্মীকে অক্সফাম ছাড়তে বাধ্য করা হয়। এদের মধ্যে অক্সফামের গেস্ট হাউজে যৌনকর্মী নিয়ে আনন্দ করার অভিযোগে একজনকে চাকরিচ্যুত ও তিনজনকে পদত্যাগে বাধ্য করা হয়। গুন্ডামি ও ভয় দেখানোর অভিযোগে দুজনকে বরখাস্ত করা হয়। এদের মধ্যে একজন আবার অফিসের ল্যাপটপে পর্নোগ্রাফি ডাউনলোড করেছিল। এছাড়া কর্মীদের নিরাপত্তা না দিতে পারায় চাকরিচ্যুত করা হয় আরো একজনকে।

এতে আরো বলা হয়েছে, হাইতিতে ডিরেক্টর অব অপারেশন্স রোনাল্ড ভন হওয়ারমেরিন তদন্ত দলের কাছে অক্সফামের গেস্ট হাউজে যৌনকর্মী নিয়ে এসে ফুর্তি করার কথা স্বীকার করেছেন। দোষ স্বীকার করায় তাকে অক্সফাম থেকে সম্মানজনক প্রস্থানের সুযোগ দেওয়া হয়েছিল।

গত সপ্তাহে অবশ্য রোনাল্ড ভন হওয়ারমেরিন বেলজিয়াম থেকে দেওয়া বিবৃতিতে যৌনকর্মী নিয়ে এসে ফুর্তি করার কথা অস্বীকার করেছিলেন।

প্রসঙ্গত, হাইতিতে ভয়াবহ ভূমিকম্পের পর ২০১১ সালে ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তায় গিয়ে অক্সফাম কর্মীরা রাজধানী পোর্ট অব প্রিন্সের নিকটবর্তী ডেলমাসে তাদের গেস্ট হাউসে সেক্স পার্টির আয়োজন করে। ওই পার্টির জন্য তারা কম বয়সী যৌনকর্মীদের দাওয়াত দেয়। ওই গেস্ট হাউসে আসা কয়েকজন যৌনকর্মী অক্সফামের টি-শার্ট পরেছিল। পরবর্তীতে কর্মীদের বিরুদ্ধে যৌনকর্মী ভাড়া করা, পর্নোগ্রাফি ডাউনলোড, নিপীড়ন ও ভয় দেখিয়ে ইচ্ছেমতো কাজ করতে বাধ্য করার অভিযোগের অভ্যন্তরীণ তদন্ত করে অক্সফাম। এরপর ভন হওয়ারমেরিনসহ সাতজন সংস্থাটির চাকরি হারান। ব্রিটিশ দৈনিক টাইমস জানিয়েছে, অক্সফাম হাইতিতে তাদের কর্মীদের ওই কেলেঙ্কারি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করে। এই সুযোগে ভন হওয়ারমেরিন ২০১২-১৪ মেয়াদে অ্যাকশন এগেইনস্ট হাঙ্গারের বাংলাদেশ মিশনের প্রধান হয়ে আসেন।