যৌন হয়রানি, গোপনে তদন্ত জন বেইলির বিরুদ্ধে

প্রকাশিত

যৌন হয়রানি, গোপনে তদন্ত জন বেইলির বিরুদ্ধে

অস্কারস অ্যাকাডেমির প্রেসিডেন্ট জন বেইলির বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগে তদন্ত শুরু হয়েছে। বিনোদন সাপ্তাহিক ‘ভ্যারাইটি’র খবর অনুযায়ী, বুধবার তার বিরুদ্ধে তিনটি যৌন হেনস্তার অভিযোগ জমা পড়ার পরই তদন্ত শুরু হয়েছে। বিশিষ্ট সিনেমাটোগ্রাফার বেইলি গত বছর আগস্টেই অ্যাকাডেমি অব মোশন পিকচার আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেসের প্রধান নির্বাচিত হয়েছেন। খবর প্রকাশের পরে কারো নাম না করে অ্যাকাডেমির পক্ষে বিবৃতি জারি করে বলা হয়েছে ‘কোনো অভিযোগ জমা পড়লে, সমস্ত পক্ষের স্বার্থের কথা মাথায় রেখে অ্যাকাডেমির পক্ষ থেকে গোপনে তদন্ত করা হয়। সংস্থার কোনো কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠলে তা খতিয়ে দেখে মেম্বারশিপ কমিটি। এরপর কমিটি রিপোর্ট জমা দেয় বোর্ড অব গভর্নর্সের কাছে। পুরো রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত আমরা কোনও মন্তব্য করব না।’

বেইলিকে সরে যেতে হলে তার পদে আসবেন লইস বুরওয়েল। মেকআপ আর্টিস্ট বুরওয়েল এখন অ্যাকডেমির ভাইস প্রেসিডেন্ট। জুলাইতে পবরর্তী নির্বাচন পর্যন্ত তিনিই এই পদ সামলাবেন। হয়রানি, যৌন নেহস্তা বা বৈষম্যের অভিযোগ উঠলে তার তদন্ত কীভাবে করা হবে, তা নিয়ে গত ডিসেম্বরেই নির্দেশিকা জারি করেছে অ্যাকাডেমি। নিউ ইয়র্ক টাইমসে হার্ভে উইনস্টনের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির খবর প্রকাশের দশ দিনের মাথায় তাঁকে অ্যাকাডেমি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছিল।