রাজনীতি আজ জনগণের কাছ থেকে অনেক দূরে সরে গেছে : হাসান সরকারর

প্রকাশিত

মৃণাল চৌধুরী সৈকত : বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা সাবেক এমপি মুক্তিযোদ্ধা হাসান উদ্দিন সরকার বলেছেন, রাজনীতি আজ জনগণের কাছ থেকে অনেক দূরে সরে গেছে। গরিব মানুষের সন্তানরা রাস্তার পাশে বসে ব্যবসা করে; আর ক্ষমতাসীনরা তাদের কাছে চাঁদাবাজি করে; একজন রাজনৈতিক দলের কর্মী হিসেবে আমার কাছে এটি খুবই লজ্জার বিষয়। তিনি নতুন
প্রজন্মের রাজনৈতিক নেতাদের কাছে আবেদন করে বলেন, দয়া করে আপনারা এর থেকে (চাঁদাবাজি থেকে) মুক্ত থাকবেন।
গাজীপুর মহানগর যুবদলের নবগঠিত কমিটির সদস্যরা বৃহস্পতিবার হাসান উদ্দিন সরকারকে তার বাস ভবনে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানাতে গেলে তিনি বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।
হাসান সরকার যুবদল নেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, বিগ্রেডিয়ার (অব.) হান্নানশাহ বেঁচে নেই, মেয়র মান্নান সাব খুবই অসুস্থ, আমিও আর বেশি দিন নেই। আপনারাই আগামী দিনের ভরসা। দল আপনাদের দায়িত্ব দিয়ে যেভাবে ইজ্জত দিয়েছে আপনারা সেই ইজ্জত রক্ষা করে চলবেন। দলে খারাপদের আশ্রয় নিবেন না। অবাঞ্চিত কেউ যেন ফ্যাস্টুনে নেতাদের পাশে নিজের ছবি দিয়ে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে না পারে সেদিকে খেয়াল রাখবেন। সাদা ও সুন্দর মনের মানুষ আজ রাজনৈতিক দলের নেতাদের নাম শুনলে ঘৃণা করে। সাধারণ মানুষ ঘৃণা করে এমন কাজ থেকে দূরে থাকতে হবে। সততাকে আঁকড়ে ধরে থাকতে হবে। সাধারণ মানুষ আপনাকে দেখলে এগিয়ে আসে, সালাম দেয়, সম্মান দেয়; তখন বুঝতে হবে আপননি ভাল কাজ করছেন।
হাসান সরকার আরো বলেন, বিগত ৫০ বছরের রাজনীতি বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, জাতীয় জীবনে গাজীপুরবাসী গৌরবোজ্জল ভূমিকা রেখেছে। কিন্তু দুর্ভাগ্য হলেও সত্য; সেই গৌরব আজ বিলিন হয়ে যাচ্ছে।
তিনি যুবদল নেতাদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, অতীতে অনেক হয়েছে। আর কোন বিরোধ দেখতে চাই না। এখন থেকে আমরা একটি সুন্দর পরিবেশ দেখতে চাই। কে কোন জেলার; কে কার সমর্থক এখন এসব দেখার কোন সুযোগ নেই।
এসময় উপস্থিত ছিলেন যুবদলের কেন্দ্রীয় নেতা রাশেদুল ইসলাম কিরণ, গাজীপুর মহানগর যুবদলের নবগঠিত কমিটির সভাপতি প্রভাষক বসির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন ভাট, সিনিয়র সহসভাপতি সাইফুল ইসলাম টুটুল, সাংগঠনিক সম্পাদক আতাউর রহমান প্রমুখ। পরে মহানগরের বিভিন্ন সাংগঠনিক থানা ও ইউনিট যুবদলের পক্ষ থেকে যুবদলের নতুন কমিটির সদস্যদের ফুল দিয়ে বরণ করা হয়।
এদিকে গাজীপুর মহানগর যুবদলের সদ্য ঘোষিত এই কমিটির সদস্যরা গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপক এম.এ মান্নানকে রাজধানীর বারিধারা ডিওএইচএস এর বাসায় গিয়ে তাঁকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান। এসময় যুবদল নেতারা অসুস্থ মেয়র মান্নানের শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর নেন।