রাজশাহীতে প্রথম আলো পত্রিকার প্রকাশক ও প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত

রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীর আদালতে প্রথম আলো পত্রিকার প্রকাশক ও প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করেছে দুই এমপি। তাদেও বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশের জের ধরে গতকাল রোববার রাজশাহী মহানগর মুখ্য হাকিম আদালতে হাজির হয়ে পৃথক দুইটি মামলা দায়ের করেন রাজশাহী-১ (গোদাগাড়ী-তানোর) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী এবং রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনের সংসদ সদস্য ও পুঠিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ দারা। দুইটি মামলায় আসামী করা হয়েছে প্রথম আলোর সম্পাদক ও প্রকাশক মতিউর রহমান এবং রাজশাহীর নিজস্ব প্রতিবেদক আবুল কালাম মুহাম্মদ আজাদকে। মামলা দুইটি আদালতের বিচারক মাহবুবুর রহমান আমলে নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন বাদি পক্ষের আইনজীবী এজাজুল হক মানু। তিনি বলেন,গত ১১ ও ১৪ জানুয়ারি সংসদ সদস্য আব্দুল ওয়াদুদ দারা ও ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে প্রথম আলো প্রত্রিকায় দুইটি সংবাদ প্রকাশ করা হয়। এতে তাদের সামাজিক, পারিবারিক, অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক, দলীয় ও রাষ্ট্রিয় খ্যাতি ও সুনাম নষ্ট করা হয়েছে। যাতে আসামীরা দন্ডবিধির ৪৯৯/৫০০ ধারায় অপরাধ করেছেন। জানা গেছে, চলতি মাসের ১৪ জানুয়ারি জাতীয় দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকায় রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) আসনের সংসদ সদস্য, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক শিল্প প্রতিমন্ত্রী ওমর ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ীদের পৃষ্ঠাপোষকতায় সাংসদের নাম বলে মনগড়া মিথ্যা ভিত্তিহীন সংবাদ প্রকাশ করায় এ প্রতিবাদের ঝড় তুলেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ সহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। একটি প্রথম শ্রেণীর জাতীয় দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকায় এমন মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন সংবাদ প্রকাশ করায় প্রথম আলোর বিরুদ্ধে তিব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে নেতাকর্মীরা বক্তব্যে বলেছেন। জিনি আমাদের রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) আসনে আওয়ামী লীগের প্রাণের অভিভাবক আমাদের প্রাণ প্রিয় নেতা মাননীয় সাংসদ ওমর ফারুক চৌধুরী এমপি। যে সবসময় রাজশাহী-১ আসনসহ রাজশাহী জেলার প্রতিটি জনগণের সুখে-দুঃখে সব সময় তাদের পাশে থেকেছেন, বর্তমানেও আছেন এবং আগামীতেও থাকবেন। অথচ নিজ দলের কিছু মির্জাফর মোসতাক বিএনপি জামাতের সঙ্গে আতাত করে ফারুক চৌধুরীর বিরুদ্ধে মরিয়া হয়ে উঠে পড়ে নেমেছে তার গোছানো মাঠ নষ্ট করতে। কিন্তু তাদের এ স্বপ্ন কোনদিন বাস্তবায়ন হবেনা তাদের মিথ্যা স্বপ্ন শুধু স্বপ্নই থাকবে। খুবশীঘ্রই তাদের প্রতিহত করা হবে। ইতিমধ্যে দলের ভাবমূর্তি নষ্টের চক্রান্তে লিপ্ত থাকায় এসব মির্জাফর মোসতাকদের বিরুদ্ধে দল থেকে কেন্দ্রীয় ভাবে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও বক্তব্যে বলেন নেতারা। নেতারা সাংবাদিকদের উদ্দ্যেশ্য করে আরো বলেন, আপনারা বস্তু নিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন করেন, আপনারা এমপির বিরুদ্ধে গত, ৮ বছরে কোন মাদকের পৃষ্ঠাপোষকতার সংবাদ করলেন না। অথচ হঠাট করে সংবাদ প্রকাশ করে বলছেন, এমপি ফারুক চৌধুরী মাদকের পৃষ্ঠাপোষকতা, গডফাদার কিন্তু কেন? আমরা জানি কারা আপনাদের দিয়ে এসব মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন সংবাদ করাচ্ছে। তাই আপনাদের কাছে অনুরোধ আপনারা কারো কুচক্রী পাল্লায় পড়ে মনগড়া সংবাদ পরিবেশন করবেননা। আমরা আওয়ামী লীগ মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে মাঠে নেমে আছি। কোন মিথ্যাচারকে আমরা ছাড় দিবনা,তাদের যেকোন বিনিমেয় প্রতিহত করবে তানোরের আওয়ামী লীগ। তানোর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি লুৎফর হায়দার রশীদ ময়না বলেন, আগামী নির্বাচনে তানোর-গোদাগাড়ীতে আবারো বিপুল ভোটের ব্যবধানে এখানে এমপি নির্বাচিত হবে ওমর ফারুক চৌধুরী। শুধু তাই নয়, এবার নির্বাচিত হয়ে রাজশাহী-১ আসনকে তিনি উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে গড়ে তুলবেন,এটি আমি হলফ করে বলতে পারি। কারণ আমি একজন ক্ষুদ্র মানুষ হিসেবে সবসময় তার মত এত বড় মাপের মানুষের পাশে থাকার সুযোগ হয়,আমি দেখি তার চিন্তা চেতনাকে। তিনি সবসময় ভাবেন তার এলাকার উন্নয়ন কি ভাবে করা যায়,সেই চিন্তায় মগ্ন হয়ে থাকেন সবসময়। তার একটিই চিন্তা ভাবনা কি ভাবে তার আসনের উন্নয়ন করা যায়,কীভাবে এলাকার গরীব দুঃখীদের পাশে থাকা যায়। শুধু এখন সুযোগ দরকার। কিন্তু এমপির স্বপ্নকে নষ্ট করতে একটি কুচক্র মহল মরিয়া হয়ে উঠেছে। অচিরেই তাদের বিরুদ্ধে দলিয় সাংগঠনিক ভাবে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এদিকে পুঠিয়া দুর্গাপুরে বিক্ষোভ করে আসছে দলীয় নেতাকর্মীরা। এর মধ্যে পুঠিয়ায় প্রথম আলোর কপি পুড়িয়েও ফেলা হয়।