রাজস্থলীতে হেডম্যান পাড়া সড়কটি দীর্ঘ ৩২ বছর ধরে বেহাল অবস্থা।

প্রকাশিত

( রাজস্থলী রাংগামাটি):  প্রতিনিধি-  রাজস্থলী উপজেলাধীন ৩নং বাংগালহালিয়া ইউনিয়নের পশ্চিমে শেষ সীমানায় স্বার্গীয় পাংওয়াজা চৌধুরী ঐতিহ্য হেডম্যান পাড়ায় প্রায় ৫০/৬০ টি পরিবার বসবাস। রাংগামাটি সড়ক হতে বান্দরবান ভায়া মূল সড়ক বটতলা নামক হতে প্রায় ১কি:মি:দূরত্ব ঐতিহ্য স্বার্গীয়  পাংওয়াজা চৌধুরী হেডম্যান পাড়া ইটের সুলিং সড়কটি তৈরি ও বাস্তবায়ন করেন রাংগামাটি জেলা পরিষদ। সুত্র জানা যায় বিগত ৮৭/৮৮ সনে দিকে এই ঐতিহ্য হেডম্যান পাড়া সড়কটি ১ম পর্যায় অনুদান বা অর্থায়নে জেলা পরিষদ কর্তৃক সমাপ্তি করেন বলে পাড়া স্থানীয় ব্যক্তি রা জানিয়েছেন।একদিকে এই সড়ক সাথে সংযোগস্থল রাংগুনিয়া উপজেলাধীন ১০নং পদুয়া ইউনিয়ন উত্ত র সুখবিলাস পাড়া পর্যন্ত বিস্তৃিত। এই সড়ক দিয়ে দৈনন্দিন পড়ুয়া ছাত্রছাত্রীসহ স্থানীয় রা শত শত লোক নিত্য প্রয়োজনীয় কাজে বা পণ্য ক্রয় বিক্রয় করতে বাংগালহালিয়া হাটবাজারে যায়। কিন্ত দু:খের সাথে জানাচ্ছি, এই সড়ক  ইট সুলিং উচু নিচু সহ বড় গর্তে হওয়া ছোট ছোট যানবাহনসহ সাধারণ লোকেরা চলাচলে ব্যাঘাত সৃস্টি হয়।কয়েকজন অটোরিকসা/সিএনজি চালকরা জানান,এই সড়কটি বেহাল  অবস্থা কারণে হেডম্যান পাড়ায় যেতে অনিহা করছে। অারো পাড়া স্থানীয় জনগনরা জানিয়েছেন,দুযোগের বেশি অতবাহিত হল কেন হেডম্যান সড়কটি উন্নয়ন বা সুলিং পাকাঁ হয়নি। অামরা খুবই দু:খিত ও মর্মহত। এতে পাড়াবাসিরা অার কত জনদুর্ভোগে পৌহাতে হবে। তারপর এক প্রবীন স্থানীয় সমাজ সেবক জানান,বাংলাদেশ মধ্যেম অায়ের দেশ ও ডিজিটাল পরিনণত হয়েছে। তবে অামরা ডিজিটাল যুগে এই ঐতিহ্য হেডম্যান পাড়া সড়ক মত অাশা করিনা। সংশ্লিষ্ট  যথাযথ কর্তৃপ ক্ষে কাছে দৃস্টি অাকর্ষণ করছি, অতিদ্রুত পাকাঁ সুলিং করে পাড়াবাসীরা দীর্ঘ দিনে জনদুর্ভোগ হতে সুরহা, রক্ষা পেতে চাই।

তার পর পাড়া নিকতবর্তী শেষ সীমানায় খালে একটি ব্রিজ নির্মাণ  ও বাস্তবায়ন করেন ত্রাণ ও দুর্যোগ  অধিদপ্তর অর্থায়নে ১৩ ইং সনে ১ম ভিক্তি স্থাপন ও উদ্বোধন করেন তৎকালীন উপজেলা চেয়ারম্যান থোয়াইসুইখই মারমা,এর পর জানা যায়,২য় বারে অাবার শুভ উদ্বোধন করেন,তৎকালীন দীপংকর তালুকদার প্রতিমন্ত্রী এমপি মহোদয়। এই ব্রিজ সাধারণ জনগনের স্বার্থে  চলাচলের সুবিধার্থে নির্মাণ করা হয়। তবে ব্রিজ তৈরি কিছু ভুলবশত এই ব্রিজের মাথা সুরুপথ ছোট হওয়া বৃস্টি মৌসুমে পাহাড়ি ঢলে পানি অাটকে থাকে। তখন খালে পানি জোয়ার বেড়েই স্থানীয় পাড়াতে প্রবেশ করছে। এতে খাল কুল কিনারা প্রসস্থ বৃদ্ধি তে প্রতিবছর বর্ষা ভাঙন শুরু করে। তাই পাড়াবাসীরা ঝুকির মধ্যে বসবাস করছে বলে কয়েকজন প্রবীন স্থানীয় পুরুষ মহিলা জানিয়েছে। অামরা এই খালে কুল কিনারা ভাঙন বন্ধ রোধ হতে পুরো পাড়াবাসী পরিত্রাণ পেতে চাই। অার একদিকে কয়েকবছরে মধ্যে ব্রিজের চেহেরা দেখুন ফাটল মরিচা প্লাস্টারিং ক্ষয়সহ ব্রিজের মাথা মাটির ধবস পড়তে দেখা যায়। এলাকায় স্থানীয়া জানান,এই ব্রিজ নিম্নমান সামগ্রিক তৈরি করার ফলে অতিদ্রুত ক্ষয় শুরু হতে চলেছে। সেই ব্রিজের ন্যাম প্লেট লেখা দৈর্ঘ্য ৩৯’ উল্লেখ আছে।কিন্তু প্রসস্থ কোন উল্লেখ দেখা যায় না। এই ব্রিজ দিয়ে প্রতিদিন ছোট ছোট যানবাহনসহ সাধারণ জনগনরা ও স্কুল পড়ুয়া ছাত্রছাত্রীরা চলাচল করছে। তবে বর্তমানে ঝুকির মধ্যে চলাচল করছে বলে উত্ত র সুখবিলাস এক স্থানীয় ব্যক্তি  মন্তব্য করেন। এব্যাপারে দৃস্টি অাকষর্ণ করছি বরাবর মাননীয় এমপি মহোদয়,জেলা পরিষদ,উন্নয়ন বোর্ড,জেলা প্রশাসক,উপজেলা পরিষদ,উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ স্থানীয় পরিষদ সরেজমিনে দেখুন। তাই হেডম্যান পাড়া সড়ক,পাকাঁ সুলিং,খাল কুল কিনারা বন্ধ সহ ব্রিজ পূর্ণ নির্মাণ যথাযথ পদ ক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য প্রাণের জোরালো দাবী স্থানীয় বাসিন্দারা।