রোহিঙ্গা হত্যায় যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীন তদন্ত কমিশন দাবি

প্রকাশিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের হত্যার ঘটনায় স্বাধীন তদন্ত কমিশনের দাবি জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। শুক্রবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স রাখাইনের উপকূলীয় গ্রাম ইন দিনে সেনাবাহিনী ও বৌদ্ধদের হাতে ১০ রোহিঙ্গা হত্যাকাণ্ডের প্রতিবেদন প্রকাশের পর মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় এ দাবি জানিয়েছে।

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের মুখপাত্র হিদার নাউয়ার্ত বলেছেন, ‘আগের পাওয়া গণকবরের খবরের সঙ্গে এই প্রতিবেদনে রাখাইন রাজ্যের উত্তরাংশে নির্যাতনের যে অভিযোগ উঠেছে সে বিষয়ে স্বাধীন ও বিশ্বাসযোগ্য তদন্তের জন্য মিয়ানমারের কর্তৃপক্ষের জরুরি সহযোগিতা প্রয়োজন।’

তিনি বলেন, ‘যা ঘটেছে তার বিশদ চিত্র পেতে, ভুক্তভোগীদের পরিচয় নিশ্চিত, যারা মানবাধিকার লঙ্ঘন ও নির্যাতনে জড়িতদের চিহ্নিত করতে এ ধরণের তদন্ত সাহায্য করবে।’

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে শুক্রবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ২০১৭ সালের ২ সেপ্টেম্বর রাখাইন রাজ্যের ইন দিন গ্রামে ১০ রোহিঙ্গাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে ও গুলি করে হত্যা করা হয়। এর নেতৃত্ব দিয়েছিল সেনাবাহিনী। ওই ১০ জনকে ইন দিনেরই একটি গ্রামে মাটিচাপা দেওয়া হয়। ওই গণকবরটিতে যখন মাটি ফেলা হচ্ছিল তখনও দেহে প্রাণ ছিল কয়েকজনের।