শান্তিতে নোবেল পাচ্ছেন ট্রাম্প?

প্রকাশিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : শান্তিতে নোবেল পদক নিয়ে প্রায় প্রতিবছরই বিতর্ক থাকে। তাই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবার শান্তিতে নোবেল পদক পেতে পারেন বলে জুয়াড়িরা বাজিও ধরে ফেলেছে্। এই তালিকায় উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ নেতা কিম জং উনের নামও বাদ যায়নি। তবে বিশেষজ্ঞদের ধারণা যৌন সহিংসতাবিরোধী প্রচারণা মি টু অথবা গণমাধ্যমের স্বাধীনতার পক্ষে কাজ করা কর্মীরা এবার নোবেল পেতে পারেন।

চলতি বছর ৩১১ জন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে শান্তিতে নোবেল পদকের জন্য বাছাই করা হয়েছে। অন্যবারের তুলনায় এই সংখ্যাটা প্রায় রেকর্ডই বলা যায়। কঠোর গোপনীয়তার মাধ্যমে এই তালিকা সংরক্ষণ করায় নির্ধারিত সময়ের আগেই তাই পদক বিজয়ীর নাম জানার কোনো সম্ভাবনাই থাকছে না।

তবে আর মাত্র কয়েক ঘন্টা। শুক্রবার স্থানীয় সময় বেলা ১১টায় অসলোতে ঘোষণা করা হবে শান্তিতে নোবেল বিজয়ীর নাম। সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটাতে অপেক্ষায় থাকতে হবে এই সময়টুকু।

এবারের পদক বিজয়ীর সম্ভাব্যদের তালিকায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে এগিয়ে রেখেছেন জুয়াড়িরা। অনলাইন জুয়ার মাধ্যম বেটসনে ৭-১ পয়েন্টে এগিয়ে আছেন ট্রাম্প। এতে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন কিংবা ফরাসি প্রধানমন্ত্রী ইমানুয়েল ম্যাক্রনের চেয়ে ট্রাম্পের পদক পাওয়অর সম্ভাবনা ১০ গুন বেশি বলে জানানো হয়েছে।

দীর্ঘ সময় পর দুই কোরিয়ার শীর্ষ পর্যায়ে আলোচনা শুরুর জন্য জুয়াড়িদের পছন্দের তালিকায় উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ নেতা কিম জং উন এবং দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইনের নামও রয়েছে। তবে কিমের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ থাকায় তর সম্ভাবনা  কম বলে দেখানো হচ্ছে।

তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, ৭০ বছরের মধ্যে প্রথমবার যৌন কেলেঙ্কারির বিষয়টি সামনে নিয়ে আসার জন্য মি টু আন্দোলন এবার নোবেল পেতে পারে। আবার কারো মতে, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে কাজ করা কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্ট ও রিপোটার্স উইদাউট বর্ডার হয়তো শান্তিতে নোবেল পেতে পারে।