শ্রীলঙ্কায় জারি হয়েছে জরুরি অবস্থা!

প্রকাশিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: শ্রীলঙ্কার ক্যান্ডি জেলায় বৌদ্ধ-মুসলমান সংঘর্ষের জের ধরে ১০ দিনের জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে। মঙ্গলবার সরকারের এক মুখপাত্র এ তথ্য জানিয়েছেন।

ক্যান্ডি শহরের কিছু কিছু এলাকায় কারফিউ জারি করা হয়েছে যেখানে সংখ্যাগুরু বৌদ্ধ সিনহালারা মুসলমানদের মালিকানাধীন দোকানপাটে ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করেছিল।

আগুনে পুড়ে যাওয়া একটি বাড়ির পাশে এক মুসলমান তরুণের মৃতদেহ উদ্ধারের পর সেখানে উত্তেজনা বৃদ্ধি পায়। গত সপ্তাহে আমপারে শহরেও মুসলমান মালিকানাধীন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও মসজিদে হামলা চালানো হয়। মুসলমানরা প্রতিশোধ নিতে পাল্টা হামলা চালাতে পারে এই আশঙ্কায় কর্তৃপক্ষ জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে।

গত কয়েক বছর ধরে শ্রীলঙ্কায় বৌদ্ধ ও মুসলমানদের মধ্যে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা বেড়ে চলছে। চরমপন্থি বৌদ্ধদের অভিযোগ, মুসলমানরা জোর করে বৌদ্ধদের ধর্মান্তরিত করছে। বৌদ্ধ কিছু জাতীয়তাবাদী কয়েকটি গ্রুপ সম্প্রতি মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা মুসলমানদের শ্রীলঙ্কায় আশ্রয় দেওয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভও করেছে।

মুখপাত্র দয়াসিরি জয়াসেকারা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, ‘মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকে দেশের অন্যান্য অঞ্চলে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা যাতে ছড়িয়ে না পরে সেজন্য ১০ দিনের জরুরি অবস্থা জারির সিদ্ধান্ত হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘যারা ফেসবুকের মাধ্যমে সহিংসতা উস্কে দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।’