সমপ্রেমী যুগলকে একসঙ্গে থাকার অনুমতি দিল আদালত

প্রকাশিত

আগেই ৩৭৭ ধারা বাতিল করে সমপ্রেমকে স্বীকৃতি দিয়েছিল সুপ্রিমকোর্ট। এবার সমপ্রেমী যুগলকে একত্রে বসবাস করার ছাড়পত্র দিল কেরল হাইকোর্ট। ২৪ বছর বয়সি বলরামপুরমের বাসিন্দা অরুণার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িযে পড়েন বছর চল্লিশের কোল্লাম নিবাসী শ্রীজা এস। একসঙ্গে থাকতে শুরু করেন তাঁরা। এদিকে, পুলিশের কাছে মেয়ের নিখোঁজ হওয়ার অভিযোগ দায়ের করেন অরুণার মা। পুলিশ অরুণাকে নিম্ন আদালতে হাজির করে। আদালত শ্রীজাকে বেকসুর মুক্তি দিলেও অরুণার পরিবারের হাতে হেনস্তা হতে হয় তাঁকে। জোর করে অরুণাকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। অরুণাকে তিরুবনন্তপুরমের মানসিক হাসপাতালে ভরতি করা হয়। হাসপাতালে অরুণার সঙ্গে দেখা করার অনুমতি শ্রীজাকে দেওয়া হলেও অরুণাকে ছাড়তে সম্মত হয়নি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তারপরে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন শ্রীজা। আদালতে শ্রীজার সঙ্গে থাকতে চান বলে জানান অরুণা। তাঁর আবেদনে সাড়া দিয়ে যুগলকে লিভ টুগেদারের অনুমতি দেয় কেরল হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ।